কাঁচা পাট রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার চায় ভারত

pat

সমাজের কথা ডেস্ক॥ বাংলাদেশ থেকে কাঁচা পাট রপ্তানির উপর সরকারের জারি করা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছেন ভারতের নতুন হাই কমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা।
রোববার সচিবালয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের সঙ্গে এক বৈঠকে তিনি বিষয়টি তুললে তা বিবেচনার আশ্বাস দেন মন্ত্রী।
মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর শ্রিংলা বলেন, “আমরা সকল বিষয়ে আলোচনা অব্যাহত রাখব, যার মধ্যে ভারতীয় কোম্পানিগুলোর কিছু ইস্যু রয়েছে- যেমন, বাংলাদেশ থেকে পাট রপ্তানি।
“বাংলাদেশ থেকে আমদানিকৃত এই পাটের উপর নির্ভরশীল ভারতীয় অনেক কারখানা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।”
পরে পাট নিয়ে ভারতের সঙ্গে আলোচনায় অংশ নেওয়া অতিরিক্ত বাণিজ্য সচিব মনোজ কুমার রায় বলেন, “এই নিষেধাজ্ঞাটি দিয়েছে পাট মন্ত্রণালয়। বিষয়টি নিয়ে আমাদেরকে আগে তাদের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে।”
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “ভারত ও ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ অনেকেই এই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার চেয়েছেন।”
ব্রিফিংয়ের সময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব হেদায়েতুল্লা আল মামুনও উপস্থিত ছিলেন।
পণ্যে পাটের মোড়কের ব্যবহার নিশ্চিত করতে গত ৩ ডিসেম্বর সব ধরনের কাঁচা পাট রপ্তানি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে সরকার।
পরে ৬ ডিসেম্বর বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় জানায়, গত বছরের ৩ নভেম্বরের আগে ইস্যু করা ২৫১টি এলসির (লেটার অব ক্রেডিট) বিপরীতে একচল্লিশটি প্রতিষ্ঠানকে ‘বিশেষ প্রক্রিয়ায়’ দুই লাখ ৭৭ হাজার বেল কাঁচা পাট রপ্তানির অনুমোদন দিয়েছে।

১৫ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ‘স্বয়ংক্রিয় স্ক্যানিং’, ‘মেশিন কাট জুট’ (১০ থেকে ১২০ মিলিমিটার), ‘জুট সিলভার’ ও ‘জুট টো’ এই চার প্রক্রিয়ায় কাঁচা পাট রপ্তানি নিষেধাজ্ঞার আওতাবহির্ভূত করে আদেশ জারি করে পাট মন্ত্রণালয়।

শেয়ার