সুন্দরবনে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মজনু বাহিনীর উপ-প্রধান তালার মশিউর নিহত ॥দেশি-বিদেশী ১১টি আগ্নেয়াস্ত্র সাড়ে ৪শ গুলি ও রামদা উদ্ধার

ostro
বাগেরহাট ও শরণখোলা প্রতিনিধি॥ পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের চরাপুটিয়া খালে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মশিউর রহমান (৩৫) নামের এক বনদস্যু নিহত হয়েছেন। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ১১ টি দেশি-বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৪৫০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার সকালে সাড়ে ৮টার দিকে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহত বনদস্যু মজনু বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড (দ্বিতীয় প্রধান) বলে র‌্যাব সূত্র নিশ্চি করেছে।
বরিশাল র‌্যাব-৮ এর উপ অধিনায়ক ও অপারেশন অফিসার মেজর আদনান কবির জানান, বনদস্যু দমনে নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে র‌্যাব সদস্যরা সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের চরাপুটিয়া খালে অভিযান শুরু করে। এ সময়ে কাঁকড়া ও মৎস্য আহরণে নিয়োজিত জেলেদের অপহরণের প্রস্তুতি নিচ্ছে এমন গোপন খবরের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা ওই এলাকায় গেলে সুন্দরবনের গহীনে লুকিয়ে থাকা বনদস্যুরা র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করতে থাকে। আত্মরক্ষার্থে এ সময় র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি শুরু করে। প্রায় আধাঘন্টা ধরে চলা এই বন্দুকযুদ্ধের একপর্যায়ে বনদস্যুরা সুন্দরবনের গহীনে পালিয়ে যায়। র‌্যাব সদস্যরা ওই এলাকায় তল্লাশি করে এক বনদস্যুর গুলিবিদ্ধ লাশ ও বনের ভিতরে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা ১১ টি বিভিন্ন ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র ও ৪৫০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে। পরে ঘটনাস্থলে আসা জেলেরা গুলিবিদ্ধ লাশ বনদস্যু মজনু বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড মশিউরের বলে সনাক্ত করেন। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে দোনলা বন্দুক ২টি, একনলা কাটা বন্দুক ৩টি, একনলা বন্দুক ২টি, এলজি ৩টি, এয়ার রাইফেল ১টি, বন্দুকের তাজা কার্তুজ ২৯টি, .২২ বোর রাইফেলের গুলি ১২৬ রাউন্ড, এয়ার গানের গুলি মোট ২৯৭টি, বন্দুকের ফায়ারকৃত কার্তুজ (খোসা) ৩২টি, দেশীয় তৈরী ধারালো অস্ত্র/রামদা ৫টি, বান্ডুলিয়ার ২টি, টর্চলাইট ২টি, তাস ১ সেট, চাঁদা আদায়ের কার্ড হিসেবে ব্যবহ্নত লেমিনেটিংকৃত মোট ১৬০/- টাকা (দশ টাকার নোট ৭টি এবং পাঁচ টাকার নোট ১৮টি), মোবাইল সেট ১টি, সীমকার্ড ২টি, হাত ঘড়ি ১টি এবং বিপুল পরিমান রশদ সামগ্রী ও তৈজষপত্র উদ্ধার করা হয়। নিহত মশিউরের লাশ, উদ্ধারকৃত আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদ বাগেরহাটের মংলা থানায় হস্তান্তর করা হবে বলে র‌্যাব কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

শেয়ার