যশোরে বোমা তৈরিকালে বিস্ফোরণের ঘটনায় মামলা॥ আসামিদের তালিকায় নেই মূল হোতা বুনো আসাদ

jessore thana kotowali
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে বোমা তৈরীকালে বিস্ফোরিত বোমার স্প্রিন্টারে আহত কোরবানসহ ছয়জনের নামে মামলা করেছে পুলিশ। তবে বোমা তৈরীর প্রধান হোতা বুনো আসাদকে এ মামলায় আসামি না করায় এলাকায় বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। সোমবার রাতে কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই শহিদুল ইসলাম মিয়া বাদী হয়ে এ মামলা করেন।
মামলার অপর আসামিরা হলো, শহরের বেজপাড়া বনানী রোডের বুনো আসাদের ভাই তুহিন ও সাইদ, কবির হোসেনের ছেলে মিলন, সালাহউদ্দিন কসাইয়ের ছেলে আরমান এবং নাজির শংকরপুর সাদেক দারোগার মোড়ের মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে আনিছুর রহমান ওরফে আনিচ।
জানা গেছে, যশোর শহরের বেজপাড়া বনানী রোডের বুনো আসাদ দীর্ঘদিন ধরে অস্ত্র ব্যবসা, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, বোমাবাজি, দখলবাজি ও মাদক ব্যবসাসহ নানা ধরনের অপরাধ অপকর্ম চালিয়ে আসছে। এলাকার অন্তত ডজন দুই উঠতি বখাটে যুবকদের সে এসব অপকর্মে ব্যবহার করছে। সোমবার প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে এলাকার একটি বাড়িতে বোমা তৈরী করছিল বুনো আসাদসহ তার ক্যাডাররা। এ সময় একটি বোমার বিস্ফোরণে বুনো আসাদের সহযোগি কোরবান আলী আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তির পর আটক করে। এ ঘটনায় পুলিশ মামলা করেছে। কিন্তু এ ঘটনায় জড়িত আর কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। পাশাপাশি এ ঘটনার প্রধান সন্ত্রাসী বুনো আসাদকে আসামি না করায় এলাকায় পুলিশের বিরুদ্ধে নানা ধরনের সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।
স্থানীয়দের অভিযোগ, বোমা তৈরির সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিল বুনো আসাদ। অথচ তাকে মামলার আসামি করা হয়নি। তবে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি (তদন্ত) শেখ গনি মিয়া দাবি করেছেন, ঘটনার সাথে বুনো আসাদের সংশ্লিষ্টতা তারা পাননি।

শেয়ার