বন্ধ হবে অবৈধ ও নকল মোবাইল সেট: তারানা

set
সমাজের কথা ডেস্ক॥ অবৈধভাবে আমদানি করা বা নকল মোবাইল হ্যান্ডসেটে বন্ধ করার প্রক্রিয়া শুরু হতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।
বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনের কাজ শেষ হওয়ার পর ‘অবৈধ’ হ্যান্ডসেট বন্ধের এই উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।
মঙ্গলবার সচিবালয়ে টেলিকম খাতের প্রতিবেদকদের সংগঠন ‘টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ (টিআরএনবি) এর নতুন কমিটির নেতা ও সদস্যদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে এ কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।
তারানা এর আগে জানিয়েছিলেন, আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে গ্রাহকের কাছে থাকা মোবাইল হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের প্রক্রিয়া শুরু হবে।
এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “মোবাইল হ্যান্ডসেটের ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল ইক্যুইপমেন্ট আইডেনটিটি (আইএমইআই) নম্বরের জন্য একটি ডেটাবেইজ করা হচ্ছে। বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইম্পোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনও (বিএমপিআইএ) তাদের নিজস্ব ডেটাবেইজ করছে। আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি তাদের সফটওয়্যার চালু হবে।”
বেসরকারি উদ্যোগে চালু হলেও এ ডেটাবেইজ বিটিআরসি সংরক্ষণ করবে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “বৈধপথে আসা হ্যান্ডসেটগুলোর আইএমইআই নম্বর সেখানে থাকবে।”
এ পদ্ধতি চালু হওয়ার পর এক সময় অবৈধ হ্যান্ডসেটগুলো বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে তারানা হালিম জানান।
“সিম নিবন্ধনে বায়োমেট্রিক পদ্ধতি নিবন্ধনের কাজ শেষ হলে সবার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যাবে। কোনো অবৈধ বা নকল আইএমইআই এর হ্যান্ডসেট যেন চালু না থাকে সে বিষয়েও উদ্যোগ নেবে বিটিআরসি।”
কোনো হ্যান্ডসেট চালু হওয়ার পর তার আইএমইআই নম্বর স্বয়ংক্রিয়ভাবে অপারেটরদের কাছে চলে যায়। অপারেটররা ইচ্ছা করলে সেই হ্যান্ডসেটের সংযোগ বন্ধ করতে পারেন বলে টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জানান।
তবে কবে নাগাদ ওই প্রক্রিয়া শুরু হবে তার সুনির্দিষ্ট সময় তারানা হালিম জানাননি।
আগামী এপ্রিলে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন শেষ হওয়ার কথা থাকলেও এ কাজের অগ্রগতি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন প্রতিমন্ত্রী।

শেয়ার