টাইগারদের ব্যাটে-বলে শীর্ষে যারা

Taskinsm
সমাজের কথা ডেস্ক॥
এগারোতম বিশ্বকাপের আসরে প্রত্যাশার চেয়েও ভালো খেলেছে লাল-সবুজের জার্সিধারী বাংলাদেশের টাইগাররা। কোয়ার্টার ফাইনালের স্বপ্ন নিয়ে খেলতে গিয়ে বিশ্বমঞ্চে কথা রেখেছে টাইগাররা। বাজে আম্পায়ারিংয়ের কারণে সেমিফাইনালের কাছে গিয়েও নিরাশ হতে হয় মাশরাফি বাহিনীকে।

তবে, ব্যাটে-বলে টাইগার বাহিনী ক্রিকেট বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে তাদের সক্ষমতা, সামর্থ্য। অবাক করে দিয়েছে তাদের ব্যক্তিগত পারফরমেন্স।

ব্যক্তিগত পারফর্ম করে মাহামুদুল্লাহ রিয়াদ বাংলাদেশের বিশ্বকাপ ইতিহাসে প্রথম শতক করেন। শুধু শতক করেই থামেন নি তিনি। টানা দুই ম্যাচে শতক হাঁকিয়েছেন ডানহাতি এ নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান। আর বোলিংয়ে ক্রিকেটের সব বড় বড় সাবেক খেলোয়াড়কে অবাক করে দিয়েছেন পেসার তাসকিন আহমেদ আর রুবেল হোসেন।

এবারের বিশ্বকাপে প্রতিপক্ষকে কাঁপিয়ে দিয়ে টাইগারদের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেছেন মাহামুদুল্লাহ রিয়াদ। আর বল হাতে সর্বোচ্চ উইকেট নিয়েছেন তরুণ তাসকিন আহমেদ।

রিয়াদ দুটি শতকসহ ৬ ম্যাচ খেলে করেন ৩৬৫ রান। সর্বোচ্চ ইনিংস খেলেন অপরাজিত ১২৮ রানের। ৭৩ গড়ে তিনি এ রান সংগ্রহ করেন। তার পরের অবস্থানে রয়েছেন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। ৪৯.৬৬ গড়ে মুশফিক করেন ২৯৮ রান। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। ৬ ইনিংসে ৩৯.২০ গড়ে সাকিবের রান ১৯৬।

বোলিংয়ে ৬ ইনিংসে ৯ উইকেট নিয়ে তাসকিন রয়েছেন টাইগারদের শীর্ষে। তারপরের জায়গাটি সাকিবের দখলে। সমান সংখ্যক ম্যাচে সাকিবের উইকেট সংখ্যা ৮টি। সাকিবের সমান উইকেট পেয়েছেন রুবেল হোসেন। টাইগার দলপতি এ ম্যাচ কম খেলে পেয়েছেন ৭টি উইকেট।

ইনিংস সেরা বোলারদের মধ্যে রুবেল এগিয়ে। ইংল্যাণ্ডের বিপক্ষে জয় পাওয়া ম্যাচে রুবেল ৫৩ রান খরচায় নেন সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট। এখানেও সাকিব রয়েছেন দ্বিতীয় স্থানে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৫৫ রানের বিনিময়ে তিনি পান ইনিংস সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট। আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় পাওয়া ম্যাচে টাইগার দলপতি মাশরাফি মাত্র ২০ রান দিয়ে তুলে নেন আফগানদের তিনটি উইকেট।

শেয়ার