তিকরিতে বিধ্বস্ত সাদ্দামের সমাধি

saddam

সমাজের কথা ডেস্ক॥

তিকরিত পুনরুদ্ধারে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে ইরাকি বাহিনীর লড়াইয়ে ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে সাবেক প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের সমাধি।
তিকরিতের কাছে আল-আওজা গ্রামে এই সমাধি অবস্থিত। রোববার (১৫ মার্চ) সাদ্দামের সমাধির কাছে শুরু হয় প্রচ- লড়াই।
তবে সমাধি ধ্বংস হলেও সেখানে সাবেক প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের দেহ নেই বলেই জনশ্রুত আছে। গতবছর স্থানীয় সুন্নি সম্প্রদায়ের লোকজন তার দেহ ওই সমাধি থেকে সরিয়ে অজানা কোথাও স্থানান্তর করেছে বলে জানায় সংবাদমাধ্যমকে।
এদিকে ইরানি সমর্থনপুষ্ট শিয়া মিলিশিয়া ও সুন্নি উপজাতি বাহিনীর সহায়তায় অগ্রসরমান ইরাকি বাহিনী সাদ্দাম হোসেনের সমাধি দখলের পর আর ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই তিকরিত পুরোপুরি দখলের অঙ্গীকার করেছেন। এ পরিস্থিতিতে তিকরিতের উত্তর ও দক্ষিণ প্রান্তে লড়াই আরো তীব্রতা পেয়েছে বলে জানা গেছে।
শিয়া মিলিশিয়া বাহিনীর এক কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন ইয়াসের নু’মা বলেন, এই একটা জায়গায় আইএসের ধ্বংসযজ্ঞ মাত্রা ছাড়িয়েছে। কারণ এখানে সাদ্দামের সমাধি রয়েছে।
এদিকে ইসলামিক স্টেট দাবি করেছে, সাদ্দামের সমাধি গত বছর আগস্টেই ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়েছে। তবে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এ দাবি প্রত্যাখ্যান করেছে।
তিকরিতে জন্ম নেওয়া সাবেক ইরাকি প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেন ২০০৩ সালে মার্কিন বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হন। এরপর এক ইরাকি ট্রাইব্যুনালে বিচারপ্রক্রিয়া শেষে শিয়া মুসলিম ও কুর্দিদের হত্যার দায়ে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে ২০০৬ সালে তাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদ- দেওয়া হয়। এরপর ২০০৭ সালে আল-আওজা গ্রামে তাকে সমাধিস্থ করা হয়।
গত বছর জুনে তিকরিত দখল করে নেয় ইসলামিক স্টেট (আইএস)। শহরটি পুনর্দখলে নিতে চলতি মাসের প্রথমদিকে অভিযান শুরু করে ইরাকি বাহিনী। তাদের সহায়তা করছে শিয়া মিলিশিয়া যোদ্ধারা।

শেয়ার