টানা ৪ শতকে সাঙ্গাকারার বিশ্বরেকর্ড

SANGA
সমাজের কথা ডেস্ক॥ বিশ্বকাপে তো বটেই, ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টানা চার ম্যাচে শতক করেছেন সাঙ্গাকারা। বুধবার স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে একাদশ বিশ্বকাপে নিজের চতুর্থ শতকটি তুলে নিয়ে অনন্য রেকর্ডটি গড়েন শ্রীলঙ্কার এই ব্যাটসম্যান।
হোবার্টের বেলেরিভ ওভালে ৮৬ বলে অনন্য এই মাইলফলকে পৌঁছান সাঙ্গাকারা। ওয়ানডেতে এটি তার ২৫তম শতক। আর বিশ্বকাপে এটা তার পঞ্চম শতক, যার চারটিই এল এই বিশ্বকাপে। আর এতে বিশ্বকাপের এক আসরে চারটি শতক পাওয়া প্রথম ব্যাটসম্যানও হয়ে গেলেন তিনি।
আগের তিন ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে অপরাজিত ১০৫, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অপরাজিত ১১৭ ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১০৪ রান করেছিলেন তিনি। আর স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ব্যাট করতে নেমে বিশ্বরেকর্ড নতুন করে লিখিয়ে ৯৫ বলে ১২৪ রান করে আউট হন সাঙ্গাকারা।

ওয়ানডে ক্রিকেটে টানা তিনটি শতকের ঘটনা আছে ৬টি। প্রথম কীর্তি গড়েছিলেন পাকিস্তানের জহির আব্বাস। ১৯৮২-’৮৩তে ভারতের বিপক্ষে এই কৃতিত্ব দেখান তিনি।
১৯৯৩ সালে শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টানা তিনটি শতক করেন পাকিস্তানের সাইদ আনোয়ার।
দক্ষিণ আফ্রিকার হার্শেল গিবস ২০০২ সালে টানা তিনটি শতক করেছিলেন কেনিয়া, ভারত ও বাংলাদেশের বিপক্ষে।
২০১০ সালে এই রেকর্ডের ভাগিদার হন এবি ডি ভিলিয়ার্স। ভারতের বিপক্ষে দুটি শতকের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন অঙ্কে পৌঁছান তিনি।
২০১৩ সালে ডি ভিলিয়ার্সের সতীর্থ কুইন্টন ডি ককও এই কীর্তি গড়েন। তার তিনটি শতকই ভারতের বিপক্ষে।
গত বছর নিউ জিল্যান্ডের রস টেইলর তার টানা তিনটি শতকের দুটি করেন ভারতের বিপক্ষে, একটি করেন পাকিস্তানের সঙ্গে।
সাঙ্গাকারা আগের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দারুণ শতক করে বিশ্বরেকর্ডের ভাগীদার হয়েছিলেন। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে শতকে রেকর্ডটি একার করে নিলেন তিনি।
বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ ৩টি করে শতক করার কৃতিত্ব গড়েছিলেন ভারতের সৌরভ গাঙ্গুলী এবং অস্ট্রেলিয়ার দুই ক্রিকেটার মার্ক ওয়াহ ও ম্যাথু হেইডেন।
অস্ট্রেলিয়ার সাবেক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ওয়াহ তিনটি শতক করেন ১৯৯৬ বিশ্বকাপে। গাঙ্গুলী তার তিনটি শতক করেন ২০০৩ সালে। হেইডেন এই কীর্তি গড়েছিলেন ২০০৭ বিশ্বকাপে। তবে তাদের কেউই শতকগুলো টানা করতে পারেনি। এক আসরেই চারটি টানা শতকে সব দিক থেকেই তাই অনন্য উচ্চতায় উঠে গেলেন সাঙ্গাকারা।

শেয়ার