ভারতকে পেছনে ফেলে অস্ত্র আমদানিতে প্রথম সৌদি আরব

soudi
সমাজের কথা ডেস্ক॥

ভারতকে পেছনে ফেলে বিশ্বের শীর্ষ অস্ত্র আমদানিকারক দেশ এখন সৌদি আরব। ইরান ইস্যু এবং ইসলামিক স্টেটের কারণে মধ্যপ্রাচ্যে সৃষ্ট সংকটের প্রেক্ষিতেই দেশটির অস্ত্র আমদানি বেড়েছে বলে এক প্রতিবেদনে মন্তব্য করেছে বৈশ্বিক বাণিজ্য বিশে¬ষক সংস্থা ইনফরমেশন হ্যান্ডলিং সার্ভিসেস (আইএইচএস)।
আইএইচএস-এর প্রতিবেদনে জানানো হয়, গত বছর সৌদি আরবের অস্ত্র আমদানির পরিমাণ ৫৪ শতাংশ বেড়ে সাড়ে ৬শ’ কোটি মার্কিন ডলারে গিয়ে দাঁড়ায়। অপরদিকে ভারত একই বছর আমদানি করে প্রায় ৬শ’ কোটি ডলারের অস্ত্র।
ধারণা করা হচ্ছে, চলতি বছরে সৌদির অস্ত্র আমদানির পরিমাণ আরো ৫২ শতাংশ বাড়বে। এবছর দেশটি প্রায় ১ হাজার কোটি ডলারের অস্ত্র আমদানি করবে বলে মনে করা হচ্ছে। অর্থাৎ অস্ত্র আমদানিতে বিশ্বে প্রতি ৭ ডলারের ১ ডলার খরচ করবে সৌদি আরব।
ইরাক এবং সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে মার্কিন নেতৃত্বাধীন যৌথবাহিনীর বিমান হামলায় সহযোগী দেশ হিসেবে রয়েছে সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত।
অস্ত্র আমদানিতে সৌদি আরবের পরেই রয়েছে ভারত। এছাড়া এই তালিকায় সেরা পাঁচে আরো রয়েছে চীন, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং তাইওয়ান।
এদিকে অস্ত্র রপ্তানিতে সবচেয়ে লাভবান দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। গত বছর দেশটি প্রায় সাড়ে ৮শ’ কোটি ডলারের অস্ত্র রপ্তানি করে। ২০১৩ সালের তুলনায় গত বছর দেশটির রপ্তানি বেড়েছে ৬শ’ কোটি ডলার। এরপরই রয়েছে রাশিয়া, ফ্রান্স, ব্রিটেন এবং জার্মানি।
আইএইচএস’র ঊর্ধ্বতন বিশে¬ষক বেন মুরস সংবাদমাধ্যমকে বলেন, সৌদি আরবে অস্ত্র আমদানির হার নাটকীয়ভাবে বেড়েছে এবং খুব সহজে এই হার কমবে না।
তিনি বলেন, অস্ত্র রপ্তানির ক্ষেত্রে মধ্যপ্রাচ্য সবচেয়ে বড় বাজার। আসছে দশকে এখানে ১ হাজার ১শ’ কোটি ডলারের বাজার সৃষ্টি হওয়ার সুযোগ রয়েছে।
তবে আইএইচএস’র এই সমীক্ষায় ক্ষুদ্র অস্ত্র, রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা অথবা গোয়েন্দা তৎপরতায় ব্যায়ের বিষয়গুলো সংযুক্ত হয়নি বলে জানান মুরস।

শেয়ার