বিচারের ভারতীয় স্টাইল জেল ভেঙে ধর্ষণে অভিযুক্তকে পিটিয়ে হত্যা

mob

সমাজের কথা ডেস্ক॥

‘বিচারের’ নতুন দৃষ্টান্ত দেখালো ভারতবাসী। কারাগার ভেঙে ধর্ষণে অভিযুক্ত এক যুবককে তুলে এনে নগ্ন করে পিটিয়ে হত্যা করেছে তারা।

বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় নাগাল্যান্ড প্রদেশের সর্ববৃহৎ শহর দিমাপুরের কয়েক হাজার বাসিন্দা বিচারের এ নতুন দৃষ্টান্ত দেখিয়েছেন।

তারা দিমাপুরের কারাগারের দু’টি ফটক ভেঙে ৩৫ বছর বয়সী অভিযুক্তকে তুলে নিয়ে আসেন। এরপর তাকে সড়কের গ্রিলের সঙ্গে নগ্ন করে বেঁধে লাঠি, লোহার রড ইত্যাদি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেন। এসময় অন্তত ১০টি গাড়িতে আগুন দেওয়া হয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, গত ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি পুরনো গাড়ির ব্যবসায়ী ওই যুবক এক তরুণীকে জিম্মি করে রেখে ধর্ষণ করে। অভিযোগের ভিত্তিতে গত ২৫ ফেব্রয়ারি তাকে গ্রেফতার করে আদালতে তোলা হলে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। তখন থেকে দিমাপুর কারাগারেই থাকছিলেন ওই যুবক।

কারাগার থেকে অভিযুক্তকে তুলে নিয়ে গিয়ে পিটিয়ে হত্যার বিষয়ে দিমাপুর পুলিশ প্রধান মেরেন জামির সাংবাদিকদের বলেন, প্রায় চার হাজার বিক্ষুব্ধ মানুষ কারাগারের দু’টি ফটক ভেঙে ফরিদকে তুলে নিয়ে যায়। তারপর তাকে শহরের একটি মার্কেট ভবনের গ্রিলের সঙ্গে নগ্ন করে বেঁধে বেধড়ক পেটাতে থাকে।

ওই যুবককে উদ্ধারে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে বলেও দাবি করেন মেরেন। তবে, পিটুনিতে গুরুতর জখম হয়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার।

জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ওয়েযোপে কেনি জানান, শহরের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কারফিউ জারি করা হয়েছে।

অভিযুক্তকে রক্ষায় কর্তৃপক্ষ সব চেষ্টাই চালিয়েছিল দাবি করে কেনি বলেন, কারাগারে হামলার সময় পুলিশ ফাঁকা গুলি ও টিয়ারশেল ছোঁড়ে। তারপরও অভিযুক্তকে তুলে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।

শেয়ার