স্ত্রীকে ‘ভালোবাসি না’ বলায় স্বামীর জরিমানা

love
সমাজের কথা ডেস্ক॥ তুরস্কে এক স্বামী রেগে গিয়ে স্ত্রীকে বলেছিলেন ‘আমি তোমাকে ভালোবাসি না’। ব্যস, আর যায় কোথায়, তাকে জরিমানা করেছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। স্বামীর এ মন্তব্যকে ‘আবেগগত সহিংসতা’ বলে মন্তব্য করেছে আদালত।

স্থানীয় ‘দা ডেইলি সাবাহ ওয়েবসাইট’য়ের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, বিবাহ বিচ্ছেদের জন্য আবেদন করার আগে এ দম্পতি পরস্পরের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ দাবি করেছিলেন। তখন শুনানি শেষে তুরস্কের নিম্নতম আদালত এই রায় দিয়েছিল যে, তারা দু’জনে একই রকমের খারাপ।

কিন্তু পরে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ তার আদেশে বলেছে, স্বামী যে তার স্ত্রীকে ‘ভালোবাসেন না’ বলে মন্তব্য করেছেন তাতে তিনি তার স্ত্রীর সাথে আবেগের দিক থেকে ‘সহিংস আচরণ’ করেছেন। এ অপরাধে স্ত্রীকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য স্বামীকে আদেশ দিয়েছে ওই আদালত। স্ত্রী বলেছেন, তার স্বামীর এ ধরনের মন্তব্যের কারণে তিনি মানসিকভাবে পুরোপুরি ভেঙে পড়েছিলেন। তবে আত্মপক্ষ সমর্থন করে ওই স্বামী বলেছেন, স্ত্রী তাকে সবসময় আজেবাজে গালাগাল করতেন। এর জবাবে তিনি তাকে এই মন্তব্য করেছিলেন।

প্রসঙ্গত, নারীর প্রতি সব ধরনের সহিংসতা বন্ধে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে তুর্কী সরকার। কিন্তু আবেগের দিক থেকে বা মানসিকভাবে কাউকে নির্যাতন করা হলে কাগজে কলমে সেটা আদালতে প্রমাণ করা খুব কঠিন। তুরস্কে ২০১৪ সালে শিক্ষিত এবং চাকুরিজীবী নারীদের ওপর চালানো এক জনমত জরিপে দেখা যায়, তাদের ৪০ শতাংশ অন্তত একবার হলেও এ ধরনের নির্যাতনের শিকার হয়েছেন।

শেয়ার