অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর লক্ষ্য আফগানিস্তানের!

afga

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ক্রিকেট ইতিহাস, পরিসংখ্যান কোনোটাই পক্ষে নেই, তবু স্বপ্ন আছে আফগানিস্তানের। আর স্বপ্নটুকু পুঁজি করেই স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হচ্ছে মোহাম্মদ নবির দল।
পার্থে বুধবার গ্রুপ পর্বে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে মুখোমুখি হবে বিশ্বকাপের ‘ফেভারিট’ অস্ট্রেলিয়া ও নবাগত আফগানিস্তান।

বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ চারবারের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া এবার পঞ্চম শিরোপার মিশনে নেমেছে। অন্যদিকে আফগানরা যোজন যোজন পিছিয়ে। তবে এ ম্যাচে এক বুক স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় আছে আফগানদের এবং সে কথা মঙ্গলবার সাংবাদিকদের বলেও গেছেন দলটির অধিনায়ক।

অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কও দুই দলের ব্যবধানটা জানেন। তবে দুই দলের সর্বশেষ ম্যাচের দিকে তাকিয়ে তিনিও প্রতিপক্ষকে হেলাফেলা করার সাহস দেখাচ্ছেন না। নিজেদের সবশেষ ম্যাচে নিউ জিল্যান্ডের কাছে হারে অস্ট্রেলিয়া আর স্কটল্যান্ডকে হারায় আফগানিস্তান।

ক্লার্ক তাই বলেন, “আমি মনে করি, তারা আসলেই ভালো পারফর্ম করছে। তাদের নির্দিষ্ট কিছু খেলোয়াড় আসলেই (দলের প্রয়োজনে) দাঁড়িয়ে যাচ্ছে এবং ভালো পারফরম করছে।”

বিশ্বকাপে এবারই প্রথম মুখোমুখি হচ্ছে দুই দল। এর আগে ওয়ানডেতে একবারই দেখা হয়েছে দুই দলের। ২০১২ সালের অগাস্টে দুবাইয়ের সেই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার জয়টি ছিল ৬৬ রানের। তবে পরিসংখ্যান খুব একটা আমলে নিচ্ছেন না ক্লার্ক। নবির এই দলটির মধ্যে যে জ্বলে ওঠার রসদের অভাব নেই, তা তিনিও মানছেন।

অ্যারন ফিঞ্চ, ডেভিড ওয়ার্নার-উদ্বোধনী জুটিতে অস্ট্রেলিয়াকে ভালো পথ দেখাচ্ছেন। শেন ওয়াটসন, গ্লেন ম্যাক্সওয়েলদের সঙ্গে ক্লার্ক থাকায় স্বাগতিকদের ব্যাটিং লাইনআপের গভীরতা নিয়ে প্রশ্ন নেই। ক্লার্ক অবশ্য চোট কাটিয়ে ফিরে কিউইদের বিপক্ষে মাত্র সাত রান করেন। পার্থের এ ম্যাচটি তাই অধিনায়কের জন্য ব্যাটসম্যান হিসেবে মেলে ধরার সুযোগ।

আফগানিস্তানের জাভেদ আহমাদি ও সামিউল্লাহ সেনওয়ারি নিয়মিত ভালো করছেন। এদের সঙ্গে আসগর স্তানিকজাইরা সামর্থ্যের সবটুকু ঢেলে দিলে অনেক সমীকরণ পাল্টে যেতে পারে বলে মনে করেন আফগান অধিনায়ক নবি।

শক্তির দিক থেকে অস্ট্রেলিয়ার বোলিং লাইনআপ এগিয়ে। তিন ‘মিচেল’ মার্শ, জনসন ও স্ট্যার্কের উপস্থিতিতে দারুণ পেস আক্রমণভাগ স্বাগতিকদের। প্যাট কামিন্স চোটের কারণে শেষ পর্যন্ত খেলতে না পারলেও তার শূন্যতা পুষিয়ে দেয়ার মতো তারকার অভাব নেই অস্ট্রেলিয়ার।
পার্থের উইকেটে নবি অবশ্য খুব আশা নিয়ে তাকিয়ে থাকবেন শাপুর জাদরান, দৌলত জাদরান ও হামিদ হাসানের দিকে। এ তিন পেসারও অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইনআপকে পরীক্ষায় ফেলার সামর্থ্য রাখেন।

আফগানিস্তান কোচ পিটার অ্যান্ডারসন তাই প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া হলেও আশা হারাচ্ছেন না, “অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর ফিফটি-ফিফটি সুযোগ আছে আমাদের।”

শেয়ার