বৌদ্ধ মূর্তির ভেতর হাজার বছরের পুরনো মমি !

mommy
সমাজের কথা ডেস্ক॥

চুরি যাওয়া গৌতম বুদ্ধের এক মূর্তির ‘এক্স-রে’ পরীক্ষায় খুঁজে পাওয়া গেল এর ভেতর থাকা হাজার বছরের প্রাচীন এক সন্ন্যাসীর মমি করা মৃতদেহ।
চীনের একটি মন্দির থেকে চুরি যাওয়ার পর মূর্তিটিকে বিক্রির জন্য নেয়া হয় নেদারল্যান্ডে। সেখান থেকে কিনে এক ব্যক্তিগত ক্রেতা মূর্তিটিকে সংরক্ষণের জন্য নিয়ে যান নেদারল্যান্ডের ড্রেন্টস জাদুঘরে। সেখানেই এক্স রে করার মাধ্যমে মূর্তির ভেতর মমিটিকে খুঁজে পান বিশেষজ্ঞরা।
ছবিতে দেখা যায়, কাপড়ে জড়ানো এক সন্ন্যাসী বুদ্ধের মতো বসে আছেন মূর্তির ভেতরে। ধারণা করা হচ্ছে, হাজার বছর আগে ওই সন্ন্যাসী স্বেচ্ছায় মৃত্যু বরণের আগে তার দেহটি মমি করার বিষয়টি নিশ্চিত করে যান। সে সময় জাপান, চীন এবং থাইল্যান্ডের স্থানীয় ধর্মবিশ্বাসে মৃত্যুর পরবর্তী জীবন নির্ধারনে এই প্রথা প্রচলিত ছিল।
তবে এভাবে মমিকরণের পদ্ধতিটি বেশ সময়সাপেক্ষ এবং কষ্টকর ছিল ওই সময়। বিশেষ খাদ্য গ্রহণ ও বিষাক্ত চা পান করে সন্ন্যাসীরা স্বেচ্ছায় মৃত্যুর পথ বেছে নিতেন। এতে দেহ এমনভাবে বিষাক্ত হয়ে উঠতো যে পোকামাকড় এমনকি যেকোনো প্রকার জীবাণুও এড়িয়ে চলতো ওই মৃতদেহ। ফলে দেহ হয়ে উঠতো পচনরোধী। তবে মাত্র অল্প কিছু সংখ্যক সন্ন্যাসীই সফলভাবে এই পদ্ধতিতে নিজেদের দেহকে মমিতে রুপান্তরিত করতে সক্ষম হয়েছিলেন। এজন্য পরবর্তীকালে মানুষের মাঝে অত্যন্ত শ্রদ্ধার পাত্র হয়ে ওঠেন তারা।
নেদারল্যান্ডের ওই জাদুঘরের পুরতত্ত্ব বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক ভিনসেন্ট ভ্যান ভিলস্টেরেন বলেন, আমরা ধারণা করছি, হাজার বছর আগে সন্ন্যাসীর মৃত্যুর পরবর্তী দু’শ বছর এই মমিটি চীনের কোনো বৌদ্ধ মন্দিরে উপাসনার জন্য রাখা ছিলো। চতুর্দশ শতাব্দীতে মমিটিকে মূর্তির ভেতরে প্রতিস্থাপনের কাজ সম্পন্ন হয়।

শেয়ার