রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা নিহত

Russian
সমাজের কথা ডেস্ক॥ রাশিয়ার সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী ও দেশটির নেতৃস্থানীয় বিরোধীদলীয় রাজনীতিবিদ বোরিস নেমৎসোভ রাজধানী মস্কোতে গুলিতে নিহত হয়েছেন।
শুক্রবার স্থানীয় সময় রাত পৌনে ১২টার দিকে হেঁটে মস্কোর বলশয় কামেনি সেতু পার হওয়ার সময় এক আততায়ীর গুলিতে তিনি নিহত হন বলে বিবিসি জানিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ক্রেমলিনের দিকে মুখ করে সেতু পার হওয়ার সময় আততায়ী একটি গাড়িতে করে এসে নেমৎসোভকে পেছন দিক থেকে গুলি করেন। তার শরীরের পেছনে দিকে চারটি গুলি লেগেছে।

এ সময় নেমৎসোভের সঙ্গে এক নারীসঙ্গী ছিলেন বলে জানিয়েছে রুশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

রুশ বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্সকে পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, একটি সাদা গাড়ি থেকে পিস্তল দিয়ে তাকে গুলি করার পর গাড়িটি ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

তবে রুশভাষী সংবাদ ওয়েবসাইট মেডুজা জানিয়েছে, একটি গাড়ি থেকে “বেশ কয়েকজন” নেমে তাকে গুলি করে।

রুশ বিরোধীদল আরপিআর-পারনাসাস পার্টির নেতা ছিলেন নেমৎসোভ। তার মৃত্যু নিশ্চিত করেছেন দলের অপর নেতা ইলিয়া ইয়াশিন।

রুশ লেন্টা.রু সংবাদ ওয়েবসাইটে ইয়াশিন বলেছেন, “দূর্ভাগ্যজনকভাবে এখন আমার সামনে বোরিস নেমৎসোভের লাশ দেখছি আমি।”
ক্রেমলিন জানিয়েছে, নেমৎসোভকে খুনের নিন্দা জানিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

ক্রিমিয়াকে রাশিয়ার অংশ করে নেয়া ও ইউক্রেইনের যুদ্ধের বিরোধী ছিলেন নেমৎসোভ। রোববার মস্কোতে ইউক্রেইনের যুদ্ধবিরোধী একটি মিছিল করার ডাক দিয়েছিলেন তিনি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে নেমৎসোভ বলেছিলেন, ইউক্রেইনের গৃহযুদ্ধের বিরোধিতা করার কারণে পুতিন তাকে মেরে ফেলতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তিনি।

১৯৯০’র দশকে রাশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট বোরিস ইয়েলৎসিনের শাসনকালে নেমৎসোভ রাশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রীর ছিলেন। ইয়েলৎসিনের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট পুতিন তাকে অগ্রাহ্য করলে সক্রিয় বিরোধীদলীয় নেতায় পরিণত হন তিনি।

তার “নৃশংস খুনের” নিন্দা জানিয়ে “দ্রুত, নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ তদন্ত” করার দাবি জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

শেয়ার