২০ শতাংশ মহার্ঘ্যভাতার দাবিতে খুলনায় শ্রমিকদের জনসভা

Mill
সমাজের কথা ডেস্ক॥ প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ, বকেয়া পরিশোধ ও ২০ শতাংশ মহার্ঘ্যভাতাসহ পাঁচ দফা দাবিতে খুলনা-যশোর অঞ্চলের আট রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিকরা জনসভা করেছেন।

শুক্রবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫টায় খালিশপুর বিআইডিসি রোডে এ জনসভা অনুষ্ঠিত হয়।

রাষ্ট্রায়ত্ত আট মিলগুলো হলো খুলনার ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, স্টার, খালিশপুর জুট মিল,আলীম, ইস্টার্ন এবং যশোরে জেজেআই ও কার্পেটিং জুট মিল।

জনসভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ রাষ্ট্রায়ত্ত জুট মিলস সিবিএ-ননসিবিএ ঐক্য পরিষদ খুলনা-যশোর অঞ্চলের আহ্বায়ক সোহরাব হোসেন।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্লাটিনাম জুবিলি জুট মিলস সিবিএ’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক সরদার মোতাহার উদ্দিন।

জনসভায় শ্রমিক নেতারা বলেন, বিজেএমসি’র ২৬টি পাটকলে পাট কেনার অর্থ বরাদ্দ, শ্রমিকদের মহার্ঘ্য ভাতা, ২০১০ সালের প্যাকেজিং আইন বাস্তবায়ন, সরকারিভাবে পাটকে কৃষিপণ্যে রূপাšরিত করে ২০ শতাংশ ভতুর্কি, বিজেএমসি’র পাটকলগুলোতে এলপিআর চালু, আলীম জুট মিলকে রাষ্ট্রীয়করণ এবং খালিশপুর ও দৌলতপুর জুটমিল বিজেএমসি’র মতো চালাতে হবে।

বিজেএমসি’র আওতাধীন প্লাটিনাম এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সভাপতি কাওসার মৃধা বাংলানিউজকে বলেন, প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ, বকেয়া পরিশোধ ও ২০ শতাংশ মহার্ঘ্যভাতা দেওয়াসহ পাঁচ দফা দাবিতে দীর্ঘদিন থেকে খুলনা-যশোর অঞ্চলের আট রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকরা আন্দোলন করে আসছেন।

তিনি অবিলম্বে শ্রমিক-কর্মচারিদের ন্যায় সঙ্গত দাবি মেনে নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান।

শেয়ার