যশোরে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে গণপিটুনিতে সন্ত্রাসী ডলার নিহত

dola
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ম্যানসেল বাহিনীর অন্যতম প্রধান ক্যাডার ৮ মামলার আসামি সন্ত্রাসী ডলার (২৭) নিহত হয়েছেন। বুধবার ভোর রাতে শহরের বেজপাড়া আনসার ক্যাম্প এলাকার মহাসিন আলীর বাড়ির সামনে এঘটনা ঘটে। নিহত ডলার শংকরপুর আশ্রম রোড এলাকার মোসলেম উদ্দিনের ছেলে।
ঘটনাস্থল থেকে দুইটি হাসুয়া, দুইটি লোহার রড ও পাঁচটি বাঁশের লাঠি উদ্ধার করা হয়েছে।
এব্যাপারে কোতোয়ালি মডেল থানায় হত্যা এবং ডাকাতি প্রচেষ্টার ঘটনায় পৃথক দুইটি মামলা হয়েছে।
জানা গেছে, ডলার দীর্ঘদিন ধরে শীর্ষ সন্ত্রাসী ম্যানসেলের প্রধান সেনাপতির দায়িত্বে থেকে বিভিন্ন এলাকায় খুন, ডাকাতি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, বোমাবাজ ও অস্ত্রধারী হিসেবে কাজ করছিল। কয়েকদিন আগে তাদের বাহিনী প্রধান ম্যানসেল ডাকাতির চেষ্টাকালে পুলিশের হাতে আটক হয়। সেই মামলায় ম্যানসেল বর্তমানে কারাগারে রয়েছে। কিন্তু তার বাহিনীর সদস্য ডলার, নজু, বনি, শয়ন, পেচো, হবি চৌধুরী, কালা বাচ্চু, লিটনসহ অন্যরা বিভিন্নস্থানে অপকর্ম চালিয়ে আসছিল।
এসআই শাহিনুর রহমান জানান, বুধবার রাতে বেজপাড়া আনসার ক্যাম্প এলাকার স্থানীয় লোকজন শান্তিশৃঙ্খলার ডিউটি পালন করছিলেন। রাত ২টার দিকে ডলারের নেতৃত্বে ১০/১২ জনের সন্ত্রাসী একই এলাকার মহাসিন আলীর বাড়ির সামনে অবস্থান নেয়। স্থানীয় লোকজন এবং শান্তিশৃঙ্খলা কমিটির সদস্যরা দেখতে পেরে ডাকাতদের ধাওয়া করে। এসময় এলাকাবাসীর উপর আক্রমণের চেষ্টা করলে গণধোলাইয়ের শিকার হয় ওই সন্ত্রাসীরা। গণধোলাইয়ের শিকার ডলার গুরুতর আহত অবস্থায় এলাকাবাসীর কাছে ধরা পড়ে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ সেখানে গিয়ে ডলারকে উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। কিন্তু চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ৩টার দিকে তিনি মারা যান।
এব্যাপারে গণপিটুনিতে নিহতের ঘটনায় এসআই শাহিনুর রহমান বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছে। এব্যাপারে কোতোয়ালি মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত শেখ গণি মিয়া জানান, রাতে ডাকাতির চেষ্টাকালে গণপিটুনির শিকার হয় ডলার। তাকে উদ্ধার করে পুলিশ হাসপাতালে নিয়ে গেলে মারা যায়।
এদিকে, একই এলাকার মৃত কিনাই চৌধুরীর ছেলে ডাকাত হবি চৌধুরী, বাচ্চু ওরফে কালা বাচ্চু, পেচো, বেজপাড়া টিবি ক্লিনিক এলাকার মৃত আব্দুস সালামের ছেলে লিটন, শংকরপুর হারানবস্তির আব্দুল হকের ছেলে শাহাদৎ ও বেজপাড়া বিহারী কলোনীর আলী আহম্মেদের ছেলে সেলিম ডাকাতির ঘটনার সাথে জড়িত ছিলো পুলিশ খবর পেয়েছে। এসকল সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র, বিস্ফোরক, ছিনতাই ও ডাকাতিসহ অর্ধ ডজন মামলা রয়েছে। অন্যদিকে, এক সপ্তাহ আগে ডলারের নেতৃত্বে চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা মদিনা বেকারির মালিক আশ্রম রোডের মিজানুর রহমান গাইনের বাড়িতে হানা দিয়ে ১৬ ভরি র্স্বাণালংকার নগদ টাকাসহ ৫ লাখ টাকা মুল্যবান মালামাল লুট করে। এ ঘটনায় মিজানুর রহমান থানায় মামলা করেন। এছাড়া একই এলাকার রামকৃষ্ণ আশ্রমে গত বছর ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ওই মামলার চার্জশিট ভুক্ত আসামি ডলার।

শেয়ার