শহরময় মশার উপদ্রব পৌরবাসী ঘুমাতে না পারলেও ঘুম ভাঙছে না পৌরসভার

mosha
পলাশ বিশ্বাস ॥
ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে শুরু হয়েছে মশার উপদ্রব। একারণে শিক্ষার্থীদের যেমন পড়াশুনার ব্যাপক সমস্যা হচ্ছে, তেমনি ঘুমের ব্যাঘাত ঘটছে যশোর পৌরসভার বাসিন্দাদের। তবে ঘুম ভাঙছে না যশোর পৌরসভার। তারা মশার উপদ্রব রোধে এখনো কোন কার্যক্রম শুরু করেনি। তবে তারা বলছেন দ্রুত মশা নিধনের কাজ শুরু করবেন।
বর্তমান মৌসুম মশা প্রজননের সময়। আর দিন কয়েক আগে হয়ে যাওয়া বৃষ্টিতে যশোর শহরের বেশ কিছু স্থানে তৈরি হয়েছে জলাবদ্ধতা। সেই সাথে ড্রেনগুলোও দীর্ঘদিন ধরে পরিস্কার করা হয়নি। সব মিলিয়ে মশার ডিম থেকে বাচ্চা হওয়ার উৎকৃষ্ট পরিবেশ বিরাজ করছে। তাই হঠাৎ বৃষ্টির পরই মশার উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে শহরের মানুষ। শহরের বেজপাড়া, শংকরপুর, এম এম কলেজ এলাকা, ষষ্ঠীতলা, মনিহার, ঘোপ কবরস্থান পাড়া, বৌ বাজারসহ বিভিন্ন স্থানের অধিবাসীরা চরম বিড়ম্বনায় পড়েছেন। বিশেষ করে সন্ধ্যার পর পরই মশার কারণে পড়ালেখায় মনোনিবেশ করতে পারছেন না শিক্ষার্থীরা। যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন মহাবিদ্যালয়ের আশপাশের ছাত্রাবাসে থাকা ছাত্রছাত্রীরা পড়াশোনায় মনোনিবেশ করতে তাই টেবিল ছেড়ে মশারির মধ্যে আশ্রয় নিচ্ছেন। মহাবিদ্যালয়টির ছাত্র বাবলুর রহমান বলেন, হঠাৎ করে মশার উপদ্রব বেড়ে গেছে। মশার কয়েল ব্যবহার করেও ফল পাওয়া যাচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়ে মশারির মধ্যে বসে পড়তে হচ্ছে। এছাড়া মশার কারণে দিনের বেলাতেও ক্যাম্পাসে থাকার পরিবেশ নেই।
শহরময় মশার এই উপদ্রব বর্তমানে সীমা ছাড়িয়ে গেলেও এখনো যশোর পৌরসভা থেকে কোন কার্যকরী উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।
যোগাযোগ করা হলে যশোর পৌরসভার সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, এখনো মশা নিধন অভিযান শুরু করা হয়নি। দুই এক দিনের মধ্যে পৌরসভা অভিযান শুরুর উদ্যোগ নেবে।

শেয়ার