যশোর মিউনিসিপ্যাল প্রিপারেটরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়॥ শিক্ষক নিয়োগের তিন বছর পর বিজ্ঞপ্তি!

oniom
শ্রাবণ সরকার॥
যশোর পৌরসভার নিয়ন্ত্রণাধীন মিউনিসিপ্যাল প্রিপারেটরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে চার শিক্ষক নিয়োগের তিন বছরের বেশি সময় পর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে। বিদ্যালয়টির সভাপতি মেয়র মারুফুল ইসলামের বিরুদ্ধে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় দুর্নীতিসহ নানা অনিয়মের তদন্তের উদ্যোগ নিলে তিনি প্রধান শিক্ষকের অগোচরেই স্থানীয় একটি দৈনিকে এ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন।
সূত্র জানায়, পদাধিকার বলে মিউনিসিপ্যাল প্রিপারেটরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পৌর মেয়র মারুফুল ইসলাম। তিনি মেয়রের দায়িত্ব নেওয়ার পর ২০১২ সালে বিদ্যালয়টিতে চারজন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেন। তবে এই নিয়োগের জন্য পত্রিকায় কোন বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়নি। অত্যন্ত চুপিসারে বড় অংকের অর্থের বিনিময়ে তিনি এহসানুল হক, সাজেদা সুলতানা, লুৎফুর নাহার ও শারমিন সুলতানা নামে চারজনকে পৌরসভায় মাস্টাররোলে নিয়োগ দেন। পরে এই চারজনকে মিউনিসিপ্যাল প্রিপারেটরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।
বিষয়টি জানতে যশোর মিউনিসিপ্যাল প্রিপারেটরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সবুর খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে প্রথমে তিনি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি সম্পর্কে অবগত নন বলে জানান। প্রধান শিক্ষকের নামে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, মেয়র নিয়োগের বিষয়গুলো দেখেন। তিনি এটা দিতে পারেন।
সূত্র মতে, ২০১২ সাল থেকে নিয়োগ পাওয়া এই চারজন শিক্ষক যশোর পৌরসভা থেকে বেতন পাচ্ছেন। কিন্তু বিজ্ঞপ্তি না দিয়ে অবৈধভাবে নিয়োগ দেওয়ায় তাদের বেতন নিয়ে একাধিকবার অডিট কোম্পানি এ নিয়ে প্রশ্ন তোলে। তাই নিয়োগের তিন বছর পরে অবৈধ এই নিয়োগকে বৈধ করতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।
সূত্র আরো জানায়, মেয়র মারুফুল ইসলামের বিরুদ্ধে স্থানীয় নাগরিকরা দীর্ঘদিন ধরে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে আন্দোলন করছেন। পৌর নাগরিক অধিকার আন্দোলনের ব্যানারে মাঠে থাকা আন্দোলনকারীদের অত্যতম অভিযোগ মেয়র মারুফুল ইসলাম দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে অর্থবাণিজ্যের মাধ্যমে শতাধিক কর্মচারী নিয়োগ দিয়েছেন। তাদের আন্দোলনের ভিত্তিতে মেয়রের বিরুদ্ধে স্থানীয় সরকারের খুলনা বিভাগীয় পরিচালক তদন্তের চিঠি ইস্যু করেন। আর এই চিঠি পাওয়ার পরই মেয়র তার সময়ের অনিয়মকে আইনি বৈধতা দিতে তিন বছর আগে নিয়োগ দেওয়া যশোর পৌরসভার অধীনস্ত মিউনিসিপ্যাল প্রিপারেটরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের চার শিক্ষক নিয়োগের জন্য গত ২৪ ডিসেম্বর স্থানীয় দৈনিক কল্যাণে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন।
এদিকে, অবরোধের মধ্যে গাড়ি পোড়ানো মামলার আসামি হয়ে আত্মগোপনে থাকা মেয়র মারুফুল ইসলামের মোবাইল ফোনে দু’সপ্তাহের বেশি সময় চেষ্টা করেও তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

শেয়ার