গণহত্যা নিয়ে ভোটে ভেটো নয়: অ্যামনেস্টি

UN
সমাজের কথা ডেস্ক॥ গণহত্যার মতো ঘটনায় পিরাপত্তা পরিষদে ভোটাভুটির সময় পাঁচ পরাশক্তিকে ভেটো ক্ষমতা ব্যবহার না করার আহ্বান জানিয়েছে মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।
বুধবার ২০১৪ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশের সময় সংস্থাটি এ আহ্বান জানায় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

২০১৪ সালে ঘটা বিপর্যয়কর ঘটনাগুলোর ক্ষেত্রে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতিক্রিয়া লজ্জাজনক ছিল বলে প্রকাশিত প্রতিবেদনে মন্তব্য করা হয়েছে।

আরো বেশি শরণার্থীদের আশ্রয় না দিয়ে “স্ববিরোধী” অবস্থান নিয়ে ধনী দেশগুলো অপরাধ করেছে বলে দাবি করেছে অ্যামনেস্টি।

২০১৫ সালেও চলমান বিশ্ব পরিস্থিতির খুব একটা হেরফের হবে না বলে পর্যবেক্ষণে হতাশা প্রকাশ করেছে সংস্থাটি।

অ্যামনেস্টির মহাসচিব সলিল শেঠি এক বিবৃতিতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ সাধারণ নাগরিকদের রক্ষা করতে “শোচনীয়ভাবে ব্যর্থ” হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন।

সাধারণ নাগরিকদের রক্ষা করার পরিবর্তে নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্র, যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স, তাদের রাজনৈতিক স্বার্থ ও ভূরাজনৈতিক স্বার্থ রক্ষার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন শেঠি।

এই সমস্যার সমাধানে ব্যাপক হত্যা বা গণহত্যার মতো ঘটনাগুলোর ক্ষেত্রে নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য দেশগুলো তাদের ভেটো ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়াতে পারে বলে মন্তব্য করেছে অ্যামনেস্টি।

এ বিষয়ে যুক্তি তুলে ধরে সংস্থাটি বলেছে, এ রকম করা হলে সিরিয়ার সহিংসতার ক্ষেত্রে জাতিসংঘের ব্যবস্থা নেয়ার উদ্যোগকে ভেটো ক্ষমতা প্রয়োগে বারবার বাধাগ্রস্ত করতে পারতো না রাশিয়া।

সহিংসতা ও সংঘর্ষের ভুক্তভোগীদের জন্য ২০১৪ সাল বিপর্যয়কর বছর ছিল বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

সশস্ত্র লড়াইয়ের পরিবর্তনশীল ধারাকে ঠেকাতে বিশ্ব নেতাদের আশু পদক্ষেপ নেয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছে সংস্থাটি।

শেয়ার