কিশোরীকে যশোর পতিতালয়ে বিক্রিকালে উদ্ধার, আটক এক

atok
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ ঢাকা থেকে এক কিশোরীকে যশোর পতিতালয়ে বিক্রিকালে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় সাথী আক্তার নামে বিক্রেতাদলের এক মহিলা সদস্যকে আটক করা হয়েছে। আটক সাথী আক্তার সাতক্ষীরা সদর উপজেলার রসুলপুর গ্রামের নূরুল ইসলামের মেয়ে।
কোতোয়ালি থানার এসআই আব্দুর রহিম জানান, সিরাজগঞ্জ জেলার শাহাজাদপুর এলাকার এক কিশোরী ঢাকায় ফুফুর বাসায় গৃহপরিচারিকা হিসেবে কাজ করতো। তাদের মনোমালিন্যের এক পর্যায়ে কাউকে না জানিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে সে ওই বাসা থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়। গাবতলী বাস টার্মিনালে এলে সাথী আক্তারের সাথে তার দেখা হয়। এসময় সাথী আক্তার তাকে বাড়িতে পৌঁছে দিবে বলে একই সাথে যশোরগামী একটি বাসে ওঠে। বুধবার বিকেলে যশোর শহরের মাড়–য়া মন্দির সংলগ্ন পতিতালয়ে বিক্রি করার সময় সেখানকার সরদার কাশেম গাজীর সাথে আলোচনা করছিলো। এসময় ওই কিশোরী বিষয়টি বুঝতে পেরে তাদের কাছ থেকে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু জেসটাওয়ারের সামনে গেলে তাকে ধরে আনার চেষ্টা করে সাথী এবং কাশেম গাজীর লোকজন। কিন্তু এসময় টহল ডিউটিতে থাকা এএসআই হাসানুর রহমান কিশোরীকে উদ্ধার এবং সাথীকে আটক করে। এর পর থেকে কাশেম গাজীসহ অন্যরা পালিয়ে যায়।
এদিকে, বৃহস্পতিবার আসামি সাথীকে যশোর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবু ইব্রাহিমের আদালতে প্রেরণ এবং কিশোরীকে জবানবন্দির জন্য হাজির করা হয়। জবানবন্দিতে কিশোরী জানায় তাকে বাড়ি পৌঁছে দেয়ার কথা বলে যশোর পতিতালয়ে বিক্রির জন্য এনেছে সাথী। অন্যরা তার সহযোগী।

শেয়ার