মঙ্গলে মেঘ দেখে বিজ্ঞানীদের কপালে ভাঁজ

mars
সমাজের কথা ডেস্ক॥

প্রতিবেশী গ্রহ মঙ্গলের গায়ে দু’টি রহস্যময় দাগের সন্ধান পেয়েছেন নভোচারীরা। তারা বলছেন, মঙ্গলের বায়ুম-ল থেকে প্রতি ১০ ঘণ্টা বাদে মেঘের মতো এক ধরনের বায়ুর আস্তরণ তৈরি হচ্ছে।

আর এতেই বিজ্ঞানীদের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। রহস্যময় এ আস্তরণ তাদের গভীর ভাবনার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে সোমবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) জানালেন একদল বিশেষজ্ঞ।

তারা ধারণা করছেন, যদি সত্যি সত্যিই মঙ্গলপৃষ্ঠে মেঘের সন্ধান মেলে, তাহলে সেখানে পানির খোঁজও মিলবে।

আর গত দু’দশক ধরে মঙ্গলে পানির সন্ধান করতে যে বিজ্ঞানীরা মাথা খুঁটে মরছেন, তা বলাই বাহুল্য।

নভোচারীরা রহস্যময় প্রথম আস্তরণটির দর্শন পেয়েছিলেন ২০১২ সালের ১২ মার্চ। প্রতি ১০ ঘণ্টায় ওই মেঘ স্থায়ী হয়েছিল ১১ দিন।

এরপর দ্বিতীয়টি দেখা যায় সে বছরের ০৬ এপ্রিল। সেটি ১০ দিন স্থায়ী হয়েছিল।

নভোচারীদের তথ্যমতে, মেঘের বিস্তার ছিল ২শ’ ৫০ কিমি.। রহস্যময় ওই আস্তরণ তৈরি হয়ে মঙ্গলের ভূপৃষ্ঠের উত্তর থেকে দক্ষিণ দিকে যাচ্ছিল।

মেঘ তো একরকম দেখা গেল, এখন তা থেকে জলের খোঁজ পাওয়া যায় কিনা সেটাই দেখার অপেক্ষা।

শেয়ার