আগে সন্ত্রাস বন্ধ করতে বললেন ‘উদ্বিগ্ন নাগরিকরা’

samsul huda
সমাজের কথা ডেস্ক॥ অবরোধের মধ্যে চলমান সন্ত্রাসী কর্মকান্ড অবিলম্বে বন্ধ করে আলোচনার প্রক্রিয়া শুরুর তাগিদ দিয়েছেন দেশের ‘উদ্বিগ্ন নাগরিকদের’ পক্ষে জ্যেষ্ঠ কয়েকজন নাগরিক।
শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ টি এম শামসুল হুদার নেতৃত্বাধীন ‘উদ্বিগ্ন নাগরিকদের’ পক্ষে একটি কমিটি এ আহ্বান জানায়।
সাবেক সিইসি শামসুল হুদা বলেন, “আগে সন্ত্রাস বন্ধ করতে হবে। পরে পরিবেশ সৃষ্টি করে আলোচনার প্রক্রিয়া শুরু করেন-এটাই আমাদের কথা।”
মধ্যবর্তী নির্বাচনের দাবিতে একমাসেরও বেশি সময় ধরে অবরোধ চালিয়ে আসা বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দল সংলাপের আহ্বান জানিয়ে আসছে।
তবে বিরোধী জোটের আন্দোলনে নাশকতার দিকে ইঙ্গিত করে তাদের সঙ্গে আলোচনার সম্ভাবনা নাকচ করেছে সরকার।
সংকট উত্তরণে গত শনিবার ‘জাতীয় সংলাপের’ উদ্যোগ প্রক্রিয়া নিয়ে এক গোলটেবিল আলোচনা হয়, যার নেতৃত্ব দেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাও ছিলেন ওই আলোচনায়।
রাজনীতিবিদ হয়েও কামাল ও মান্না নাগরিক সমাজের উদ্যোগের নেতৃত্বে থাকায় তা নিয়ে সমালোচনা আসে প্রধানমন্ত্রীসহ আওয়ামী লীগ নেতাদের কাছ থেকে।
তবে শামসুল হুদার নেতৃত্বে যে কমিটি করা হয়েছে তাতে নেই জ্যেষ্ঠ আইনজীবী কামাল হোসেন ও সাবেক ছাত্রনেতা মান্না।
সংলাপের উদ্যোগ নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে গত সোমবার রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে চিঠি দেওয়ার মাধ্যমে আলোচনায় আসে জ্যেষ্ঠ নাগরিকদের এ অংশটি।
তারই ধারবাহিকতায় সকালে প্রেসক্লাবে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরেন তারা।

শেয়ার