বহু প্রতীক্ষিত যশোর আ’লীগের সম্মেলন ॥ অতিথি বরণ করবেন প্রায় এক হাজার শিক্ষার্থী

showdwon
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ ১২ বছর পর আজ ১২ ফেব্রুয়ারি ঐতিহাসিক যশোর ঈদগাহ ময়দানে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এদিন সকাল ১০টায় সম্মেলন উদ্বোধন করবেন দলের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ। সম্মেলনে প্রধান অতিথি থাকবেন মুজিবনগর সরকারের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলামের সুযোগ্য পুত্র আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।
এদিকে, সম্মেলন উপলক্ষে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। সাজসাজ রব পড়ে গেছে গোটা শহরে। ব্যানার ফেস্টুন, আলোকসজ্জায় কেন্দ্রীয় নেতাদের স্বাগত জানানো হয়েছে। আর হলুদ শাড়ি ও টুপি মাথায় দিয়ে অতিথি বরণে থাকছে প্রায় এক হাজার শিক্ষার্থী।
জানা যায়, ২০০৩ সালে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন সর্বশেষ অনুষ্ঠিত হয়। ওই সম্মেলনে আলী রেজা রাজু সভাপতি ও শাহীন চাকলাদার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এরপর ২০০৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনা যশোর জেলা কমিটি ঘোষণা করেন। দলের দুর্দিনে (বিরোধী দলে) হাল ধরা আলী রেজা রাজু ও শাহীন চাকলাদার গত এক যুগ রাজপথ দখল করে রেখেছেন। এ অবস্থার মধ্যে আজ নেতৃত্ব নির্বাচনে যশোর আসছেন কেন্দ্রীয় মেধাবী ও তারকা নেতারা। যারা ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামী লীগের গুরুত্বপর্ণ পদে থেকে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদের বিপক্ষে রাজপথ কাঁপিয়েছেন। শুধু তাই নয়, প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন দিক নির্দেশনা মতে আগত নেতারা দেশের দুর্যোগকালীন সময়ে মানুষের জানমালের পাশে থেকেছেন। সম্মেলনে বিশেষ অতিথি থাকবেন কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ এমপি ও জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, কৃষি ও সমবায় সম্পাদক সাবেক মন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি। অনুষ্ঠানে প্রধানবক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখবেন যশোরবাসীর প্রিয় নেতা কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (খুলনা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) বিএম মোজাম্মেল হক এমপি। এছাড়া সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাসিম এমপি, সাবেক শ্রম প্রতিমন্ত্রী খুলনার সন্তান দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান এমপি, যশোরের সন্তান সাবেক তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদ, কেশবপুরের পুত্রবধূ জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক এমপি, নড়াইলের সন্তান দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সুভাষ চন্দ্র বোস, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য একেএম এনামুল হক শামিম এবং এসএম কামাল হোসেন প্রমুখ। সভাপতিত্ব করবেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলী রেজা রাজু। সম্মেলন পরিচালনা করবেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার। এদিকে, আগত নেতাদের নামে বিশাল বিশাল তোরণ ও ব্যানারে কেন্দ্রীয় নেতাদের শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে। একই সঙ্গে তোরণের নামকরণ করা হয়েছে ১৫ আগস্টে শহীদদের নামে ও আওয়ামী লীগের প্রয়াত নেতাদের নামে। সব মিলে দুই শতাধিক তোরণ তৈরি করা হয়েছে। আর প্রায় এক হাজার কলেজ ছাত্রী একই রঙের শাড়িতে আগত অতিথিদের ফুল ছিটিয়ে বরণ করবে।

শেয়ার