কংগ্রেসে যুদ্ধের অনুমোদন চাইলেন ওবামা

Obama
সমাজের কথা ডেস্ক॥ ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে সামরিক শক্তি ব্যবহারের অনুমোদনের জন্য কংগ্রেসে প্রস্তাব তুলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

ইরাক ও সিরিয়ায় বিস্তীর্ণ এলাকা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ‘খেলাফতের’ ঘোষণা দেওয়া আইএসের বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালানোর মাস ছয়েকের মাথায় তার জন্য কংগ্রেসের অনুমোদন চেয়ে ওবামা বলেছেন, এ অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রকে ‘সবচেয়ে শক্তিশালী’ করবে।

বুধবার ওবামার এই প্রস্তাব ওঠার সঙ্গে সঙ্গে বিরোধী রিপাবলিকানদের পাশাপাশি নিজ দলের কংগ্রেসম্যানদেরও বিরোধিতার মুখে পড়ে তা।

ওবামার পররাষ্ট্রনীতিকে ‘দুর্বল’ আখ্যা দিয়ে তার সমালোচনা করে আসা রিপাবলিকানরা আরো কঠোর পদক্ষেপ চান আইএসের বিরুদ্ধে। কংগ্রেসের নিয়ন্ত্রণ রয়েছে রিপাবলিকানদের হাতে।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রস্তাবে আইএসবিরোধী লড়াইয়ে বড় সংখ্যায় তার দেশের স্থলবাহিনী নিয়োজিত করার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে এবং আগামী তিন বছর ধরে অভিযান চালানোর কথা বলা হয়েছে।

রিপাবলিকানরাও আরো কঠোর পদক্ষেপের জন্য বিরোধিতা করলেও এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র মধ্যপ্রাচ্যে আবার একটি লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়তে পারে বলে সতর্ক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ওবামার ডেমোক্রেট দলীয় সদস্যরা।

বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে এসে প্রস্তাবের পক্ষে সমর্থন চেয়ে কংগ্রেস সদস্যদের উদ্দেশে ওবামা বলেন, “এখন কোনো ভুল করো না। এটা একটি কঠিন মিশন এবং আরো বেশ কিছু সময়ের জন্য তা কঠিন থাকবে।

“তবে আমাদের জোট আক্রমণে আছে। আইএসআইএল আত্মরক্ষায় ব্যস্ত এবং তারা পরাজিত হতে যাচ্ছে।”

হোয়াইট হাউসে ওই সংবাদ সম্মেলনের সময় ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী চাক হেগেল প্রেসিডেন্টের পাশে ছিলেন।

অপর কয়েকটি দেশের সঙ্গে একটি জোট করে গত বছর থেকে আইএসের বিরুদ্ধে বিমান হামলা পরিচালনা করছে যুক্তরাষ্ট্র।

এর আগে ইরাক আক্রমণের জন্য ২০০২ সালে প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ সামরিক শক্তি ব্যবহারে কংগ্রেসের অনুমোদন চেয়েছিলেন, এবার চাইলেন ওবামা।

শেয়ার