শনিবার শপথ নিতে পারেন কেজরিওয়াল

Arvind
সমাজের কথা ডেস্ক॥ দিল্লির বিধানসভা নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয় পেতে যাচ্ছে আম আদমি পার্টি (এএপি) এবং দলের প্রধান হিসেবে দিল্লির মূখ্যমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। ধারণা করা হচ্ছে, ১৪ ফেব্রুয়ারি রামলিলা ময়দানে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করবেন তিনি।

এই রামলিলা ময়দানেই ২০১১ সালে সবার নজর কাড়েন ৪৬ বছর বয়সী কেজরিওয়াল। সেবার গান্ধীবাদী সমাজকর্মী আন্না হাজারের প্রধান সহকারী হিসেবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামেন তিনি।

প্রথমবার দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পর রামলিলা ময়দানেই শপথ নিয়েছিলেন কেজরিওয়াল।

তবে কেজরিওয়ালের সংখ্যালঘু সরকার মাত্র ৪৯ দিন দিল্লির মসনদে আসীন ছিল। ২০১৪ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ান তিনি।

সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, দিল্লি বিধান সভার মোট ৭০টি আসনের মধ্যে ৬৭টিতে জিতেছে এএপি। আর কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন নরেন্দ্র মোদীর বিজেপি মাত্র ৩টি আসনে জয় লাভ করেছে। কংগ্রেস একটি আসনও পায়নি।

এএপি’র নতুন করে নির্বাচিত বিধায়করা মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে দিল্লির বিধান সভায় যাবেন এবং আনুষ্ঠানিক ভাবে দলের প্রধানকে নির্বাচন করবেন।

আগামী কয়েক দিনের মধ্যে দিল্লির গভর্নর কেজরিওয়ালকে আনুষ্ঠানিক ভাবে সরকার গঠনের আমন্ত্রণ জানাবেন।

এরই মধ্যে নিজের কর্মসূচি পরিষ্কারভাবে ঘোষণা করেছেন কেজরিওয়াল। এনডিটিভি’কে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “আমার প্রথম লক্ষ্য হবে ঘুষ সমূলে বিনাশ করা।”

দুর্নীতি ও ভিআইপি সংস্কৃতি বন্ধে তার সরকার কাজ করবে বলেও জানান এই নেতা।

শনিবার শপথ গ্রহণের পর রোববার থেকে মূখ্যমন্ত্রী হিসেবে কেজরিওয়াল কাজ শুরু নাও করতে পারেন। এএপি’র কয়েকজন নেতা জানান, রোববার বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচটি দেখার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তিনি। একারণেই শপথ অনুষ্ঠান রোববার না করে একদিন এগিয়ে দেয়া হয়েছে।

শেয়ার