যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল ॥ ২৫ দিনে ৮২১ ডায়রিয়া রোগী ভর্তি সেবা দিতে গিয়ে চার সেবিকা আক্রান্ত

Jessore hospital
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে গত দুইদিন ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগী কম ভর্তি হলেও মঙ্গলবার থেকে আবারও বাড়তে শুরু করেছে। গতকাল ২৪ ঘন্টায় ডায়রিয়া আক্রান্ত হয়ে নতুন ৩২ জন রোগী ভর্তি হয়েছে।
এদিকে, ডায়রিয়া আক্রান্তের সঠিক কারণ নির্ণয় করা সম্ভব না হলেও র‌্যাপিট রেসপন্স টিমের বিশ্লেষণা মতে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ধারণা করছেন ট্যাংকির পানি ব্যবহার ও বাইরের খাবার খাওয়ার কারণে মানুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে। তবে আজ (বুধবার) ঢাকা থেকে পরীক্ষার রিপোর্ট এলে মূলকারণ বলা যাবে। অপরদিকে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিতে যেয়ে ৪ জন সেবিকাও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। হাসপাতালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত ১৬ জানুয়ারি থেকে ১০ ফেব্রুয়ারি ২৫ দিনে ৮২১ জন রোগী ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। মঙ্গলবার ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয়েছে ৩২ জন। বর্তমানে হাসপাতালে অবস্থানরত রোগী আছে ৫৪ জন। এরমধ্যে পুরুষের সংখ্যা বেশি।
হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, হঠাৎ করে গত ১৬ জানুয়ারি থেকে যশোরে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকে। যা বর্তমানেও অব্যাহত রয়েছে। প্রথম দিনে এই সকল রোগীকে ব্যবস্থাপত্র দিতে যেয়ে হিমশিম খান হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পরে এই সকল রোগীকে উন্নত সেবা প্রদানের জন্য হাসপাতাল ও যশোর সিভিল সার্জনের উদ্যোগে দুইটি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়। এই মেডিকেল টিমের সহায়ক হিসেবে গঠন করা হয় র‌্যাপিট রেসপন্স টিম। এদিকে, ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিতে যেয়ে ৪ জন সেবিকাও আক্রান্ত হয়েছেন। তারা হচ্ছেন শাহানাজ পারভীন (৩৭), শিল্পী বিশ্বাস (৪২), রোকেয়া বেগম (৫০) ও মকছেদা বেগম (৫২)।
র‌্যাপিট রেসপন্স টিমের সদস্য নাজরানা মুস্তাফিজ বলেন, গত দুইদিন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগী কম ভর্তি হলেও আজ হঠাৎ করে বেশি ভর্তি হয়েছে। তবে নতুন ভর্তি রোগীদের অবস্থা ভালো।
এ ব্যাপারে হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়কের দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী পরিচালক শ্যামল কৃষ্ণ সাহা বলেন, আসলে কি কারণে মানুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে তার সঠিক কোন কারণ জানা যাচ্ছে না। তবে হাসপাতালের ডাক্তারদের বিশ্লেষণ ট্যাংকির পানি ব্যবহার এবং বাইরে খোলা খাবার খাওয়ার ফলে মানুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, হরতালে কোন সমস্যা না হলে আজ (বুধবার) ঢাকা মহাখালি থেকে রিপোর্ট যশোরে আসলেই ডায়রিয়ার মূল কারণ সম্পর্কে জানা যাবে।

শেয়ার