ভাইকে আগুনে পোড়ালো শিবির কর্মী

sibir
সমাজের কথা ডেস্ক॥
শিবির ও শিবিরের কর্মকান্ডে না জড়াতে অনুরোধ করায় ছোট ভাই মুনির হোসেনের (৩৪) বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে তারই বড় ভাই আক্তার হোসেন (৩৬)। এতে মুনির হোসেনের শরীরের ২৫ শতাংশ ও তার স্ত্রীর দুই হাত পুড়ে যায়।
শুক্রবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে গাজীপুরের জয়দেবপুরে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর মুনির হোসেনকে প্রথমে স্থানীয় সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি ঘটলে রাত আড়াইটায় দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।
মুনির হোসেনের বাড়ি জয়দেবপুরের পশ্চিম বিরুলিয়ায়। তিনি টোবাকো কোম্পানিতে কর্মরত আছেন। তার স্ত্রীর নাম জান্নাতুল ফেরদৌস। তাদের এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।
মুনির হোসেনের মেজ ভাই ইকবাল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, চার ভাইয়ের মধ্যে তৃতীয় আক্তার হোসেন শিবিরের কর্মকান্ডের সঙ্গে জড়িত। সে গাজীপুরে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে কাজ করে। সেখানেই তার বাসা।
তিনি বলেন, যত দূর জানি গাজীপুরে চলমান নাশকতায় স্থানীয়ভাবে আক্তার হোসেনও জড়িত।
ছোট ভাই মুনির বিষয়টি পরিবারের সবাইকে জানিয়ে দিলে ক্ষিপ্ত হয় আক্তার।
ইকবাল বলেন, শিবির করায় গাজীপুর সদর থানায় একটি সাধারণ ডাইরিও করি আমরা। পরে পুলিশ আক্তারকে ধরতে তার বাড়িতেও যায়। এতে আক্তার আরও ক্ষিপ্ত হয়। ধারণা করছি সেই সূত্র ধরে মুনিরের বাসায় আগুন লাগিয়ে দিয়েছে সে। এতে মুনির গুরুতরভাবে পুড়ে গেছে। তার স্ত্রীর হাত পুড়েছে। তবে এতে তাদের দুই সন্তানের কোনো ক্ষতি হয়নি।
ঢামেক বার্ন ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. লাবনি জানান, মুনির হোসেনের শরীরে ২৫ শতাংশ পুড়ে গেছে। তিনি কিছুটা হলেও ঝুঁকিতে রয়েছেন। তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

শেয়ার