কফিনের দিকে তাকিয়ে অনেকেই চোখ মুছলেন ॥ শাহীন চাকলাদারসহ নেতৃবৃন্দের শোক

shahi vhi
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত থেকে ফেরার পথে মেয়ের সাথে লাশ হন নুরুজ্জামান পপলু। ২০ দলীয় জোটের চালানো সহিংসতার শিকার হওয়ার খবর শুনে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ তার বাড়িতে জড়ো হয়। পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সমবেদনা জানান তারা। আর গতকাল রাতে লাশ আনা হলে সেখানে এক হৃদয়বিদারক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।
নিহতের বাসভবন যশোর শহরের ঘোপ সেন্ট্রাল রোড এলাকায় যখন পিতা ও মেয়ের কফিনে মোড়া লাশ আনা হয়, তখন গোটা এলাকায় যেন শোকের ছাড়া নেমে আসে। বিলাপ করতে থাকা স্বজনদের অনেকে বার বার কফিনের দিকে তাকিয়ে মুচ্ছা যান। তাদের সান্তনা দিতে আসা শহরের বিভিন্ন এলাকার মানুষদের অনেককে তখন চোখ মুছতে দেখা যায়। গতকাল রাতে লাশ বাড়ি পৌঁছালে সেখানে ছুটে যান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদারসহ জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। এসময় ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন নেতৃবৃন্দ।
উল্লেখ্য মঙ্গলবার ভোরে কক্সবাজার থেকে ফেরার পথে কুমিল্লায় পেট্রোল বোমায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে নিহত হন নুরুজ্জামান পপলু (৪৯) ও তার মেয়ে মাহিশা নাহিয়ান (১৪)। একই ঘটনায় গুরুত্বর আহত হয়েছেন পপলুর স্ত্রী মাহাফুজা বেগম মিতা।

শেয়ার