নাইজেরিয়ায় নির্বাচনী সমাবেশে আত্মঘাতী হামলা

naig
সমাজের কথা ডেস্ক॥ নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট গুডলাক জোনাথন সমাবেশস্থল ত্যাগ করার কয়েক মিনিটের মধ্যেই তার নির্বাচনী প্রচারণা সমাবেশে আত্মঘাতী বোমা হামলা হয়েছে।

সোমবার দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় গোম্বে শহরের এ ঘটনায় একজন নিহত হয়েছেন বলে বিবিসি জানিয়েছে।

নারী আত্মঘাতীর চালানো ওই বোমা হামলায় আরো ১৮ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রগুলো।

১৪ ফেব্রুয়ারি নাইজেরিয়ার পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। এতে বর্তমান প্রেসিডেন্ট জোনাথন পুনরায় প্রার্থী হয়েছেন, তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হিসেবে আছেন সাবেক সামরিক শাসক মুহাম্মাদু বুহারি।

গোম্বে পুলিশের মুখপাত্র ফওয়াজি আতাজিরি জানিয়েছেন, আত্মঘাতী একটি গাড়ির কাছে বিস্ফোরণটি ঘটিয়েছে। এতে এক নারী পথচারী নিহত হয়েছেন।

এর আগের প্রতিবেদনগুলোতে বিস্ফোরণে তিনজন নিহত হওয়ার কথা বলা হয়েছিল।

সমাবেশে থাকা মোহাম্মেদ বোলারি জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট জোনাথন চলে যাওয়ার তিন/চার মিনিটের মধ্যেই বিস্ফোরণটি ঘটে।

তিনি বলেছেন, “প্রেসিডেন্ট মাত্রই পার্কিং এলাকাটি পার হয়েছেন আর আমরা তার গাড়িবহরের পিছু পিছু যাচ্ছিলাম, এমন সময়ই বিস্ফোরণটি ঘটে।”

মাত্র একদিন আগেই শহরটিতে আরো দুটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে, তাতে অন্ততপক্ষে পাঁচজন নিহত হন।

একটি বার্তা সংস্থাকে স্থানীয় এক সাংবাদিক জানিয়েছেন, জোনাথনের সমাবেশে বিস্ফোরণের ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় গোম্বেতে অস্থিরতা দেখা দিয়েছে।

স্থানীয় উত্তেজিত তরুণরা প্রেসিডেন্টের পিপলস ডেমক্রেটিক পার্টি’র (পিডিপি) সমর্থকদের উপর হামলা চালিয়েছে।

“তারা চিৎকার করে প্রেসিডেন্টে’র আসার নিন্দা জানাচ্ছিল, এর জন্যই হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ করছিল তারা,” বলেছেন তিনি।

নাইজেরীয় পত্রিকা ‘দ্য ভ্যানগার্ড’ জানিয়েছে, এই আত্মঘাতী হামলার পর উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় ইয়োবে রাজ্যের দামাতুরু ও বোর্নো’র মাইদুগুরিতে পূর্বপরিকল্পিত নির্বাচনী সমাবেশ বাতিল করেছেন উভয় প্রেসিডেন্ট প্রার্থী।

পত্রিকাটি নির্বাচনকে সামনে রেখে জঙ্গিগোষ্ঠী বোকো হারাম হামলা বাড়ালেও জোনাথনের সমাবেশে হামলার বিষয়ে কিছু বলেনি।

শেয়ার