সাতক্ষীরা শহরে ডাকাত আতঙ্কে নির্ঘুম পাহারায় এলাকাবাসী

pahara
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি॥ সম্প্রতি সাতক্ষীরা শহরে গণডাকাতির ঘটনায় সাধারন জনগনের মধ্যে এক অজানা আতংক বিরাজ করছে। তাই তারা নিজেদের সহায় সম্বল রক্ষায় ডাকাত প্রতিরোধে সারা রাত জেগে পাহারায় নেমে পড়েছেন।
জানা যায়, সম্প্রতি সাতক্ষীরা শহরের কাটিয়া সরকার পাড়া, মুনজিতপুর ও রাজার বাগান এলাকার কয়েকটি বাড়িতে গণহারে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। সশস্ত্র ডাকাতরা এ সময় পর্যায়ক্রমে প্রায় ২০ টি বাড়িতে হানা দেয়। ডাকাতরা এ সব বাড়ি থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ প্রায় অর্ধ কোটি টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। ডাকাতির কাজে বাধা দিলে ডাকাতরা অবসরপ্রাপ্ত এক ব্যাংক কর্মকর্তাসহ তার স্ত্রী ও ছেলেকে কুপিয়ে জখম করে। এসব ডাকাতির ঘটনায় আজ পর্যন্ত একজন ডাকাতকেও পুলিশ আটক করতে পারেননি। ডাকাতরা সব সময়ই রয়ে গেছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে। ফলে শহরের এসব এলাকার মানুষের মধ্যে এখনও ডাকাত আতঙ্ক বিরাজ করছে। যে কারণে ডাকাত আতঙ্কে এখন নিজেরাই নিজেদের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিয়ে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন পালাক্রমে। পাহারা থেকে বাদ যায়নি সাংবাদিকরাও। তারাও এলাকাবাসীর সঙ্গে থেকে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন। বাঁশি, লাঠি ও হকষ্টিক হাতে নিয়ে তারা পালাক্রমে রাতভর পাহারা দিচ্ছেন। পুলিশের টহলদলও তাদের খোজ খবর নেন বলে জানান, পাহারায়রত এলাকাবাসীরা।
এলাকাবাসীরা জানান, ডাকাতের উৎপাতে অতিষ্ঠ হয়ে তারা ঐক্যবদ্ধভাবে ডাকাত প্রতিরোধে মাঠে নেমেছেন। এলাকাবাসী সজাগ থাকলে ডাকাতি প্রতিরোধ করা সম্ভব। তবুও যেনো আতঙ্ক কাটছেনা। ডাকাতদের হাতে থাকে আগ্নেয়াস্ত্র কিম্বা ধারালো অস্ত্র। আর পাহারাদাদের হাতে থাকে লাঠি, বাঁশি ও হকস্টিক। ডাকাত মোকাবেলায় এলাকাবাসীর একতা আর সাহসিকতাই তাদের একমাত্র ভরসা।

শেয়ার