যশোর সরকারি এমএম কলেজ ॥ জুনের আগেই শেষ হচ্ছে একাডেমিক ভবন নির্মাণ বরাদ্দ পেতে পাঁচ বিভাগের আবেদন

mm college
সালমান হাসান ॥
যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজের (এমএম কলেজ) দীর্ঘদিনের ক্লাস রুম সংকটের নিরসন হতে চলেছে। চলতি বছরের জুুন মাসের আগেই চালু হবে কলেজের নির্মাণাধীন একাডেমিক কাম এক্সামিনেশন হল। ৪ কোটি ১৩ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত এ ভবন চালু হলে ক্লাস রুমের সঙ্কট পুরোপুরি সমাধান না হলেও কিছুটা লাঘব হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের আবাসন সমস্যা সমাধানে ১শ’ আসন বিশিষ্ট দুইটি হোস্টেল নির্মাণের কাজ চলতি বছরে শুরু করা হবে। শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর যশোরের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ মইনুদ্দিন জানিয়েছেন, মাইকেল মধুসূদন কলেজের নির্মাণাধীন একাডেমিক কাম এক্সামিনেশন হলের শতকরা ৯০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। বাদবাকী কাজ শিঘ্রই শেষ হবে। আগামী জুন মাসের মধ্যে কলেজ কর্তৃপক্ষকে এ ভবনের হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে অধিদপ্তর। আর কলেজ ক্যাম্পাসে একটি ছাত্রাবাস ও একটি ছাত্রী নিবাস তৈরির মাস্টার প্লান করা হয়েছে। প্রতিটি হোস্টেল নির্মাণে ব্যয় হবে অন্তত ২ কোটি ৯২ লাখ টাকা।
কলেজ সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে কলেজের শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৩৪ হাজার। দিনে দিনে বাড়বে এ সংখ্যা। চলতি বছরে অনার্স প্রথম বর্ষে ভর্তি হচ্ছে আরও ৩ হাজার ২২৫ জন। বর্ধিষ্ণু শিক্ষার্থীর এ কলেজে মাত্র চারটি একাডেমিক ভবনে ১৯টি বিভাগের শিক্ষার্থীদের নিয়মিত ক্লাস নেওয়া সম্ভব হয় না। এছাড়া সারা বছরজুড়ে এইসএসসি, অনার্স, ডিগ্রি, মাস্টার্স’র বিভিন্ন সময়ে অনুষ্ঠিত হয় পরীক্ষা কার্যক্রম। এ সময় শ্রেণিকক্ষ সংকট থাকায় অনেক গুরুত্বপূর্ণ ক্লাস থেকে বঞ্চিত হয় শিক্ষাথীরা। বিশেষ করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত বিভিন্ন কলেজের ভেন্যু হিসেবে এখানে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ায় রুম সংকট তীব্র হয়।
এ সময় বাধ্য হয়ে একাডেমিক ক্লাস বন্ধ রাখেন কর্তৃপক্ষ। তবে নতুন এ ভবন চালু হলে কিছুটা সংকট কম হবে। ৪ তলা এ ভবনে ১৬টি ক্লাস রুমে প্রায় ১৬শ’ জন শিক্ষার্থী একই সময়ে ক্লাসে অংশ নিতে পারবে বলে জানায় কলেজ কর্তৃপক্ষ। কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নমিতা রানী বিশ্বাস জানান, ইংরেজি, ইসলাম শিক্ষা, ইসলামের ইতিহাস, দর্শন ও ইতিহাস বিভাগ আবেদন করেছে এ ভবনে স্থান বরাদ্দের জন্য। তবে চারটি বিভাগকে এখানে স্থানান্তরিত করা হবে। তিনি আরও জানান, ভবনটি চালু হলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পরীক্ষার সময় ক্লাস বন্ধ রাখার দরকার হবে না। কারণ বিভিন্ন পরীক্ষা এ একাডেমিক কাম এক্সামিনেশন হলে অনুষ্ঠিত হবে।

শেয়ার