বাগেরহাটের ঘষিয়াখালী-মংলা চ্যানেল খনন কাজের উদ্বোধন ॥ মানুষ মারা বন্ধ না করলে খালেদা জিয়ার খাবার কেড়ে খাবে শ্রমিকরা : নৌ মন্ত্রী

shajahankhan
বাগেরহাট প্রতিনিধি॥ নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, হরতাল ও অবরোধের নামে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া দেশের মানুষকে পুড়িয়ে মারছে। অর্থনীতির চাকা থামিয়ে দিয়ে ও শ্রমিকদের রুটি-রুজি অনিশ্চিত করার মাধ্যমে রাষ্ট্রক্ষমতায় যেতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন খালেদা জিয়া। জ্বালিয়ে পুড়িয়ে মানুষ মারাসহ ধবংসযজ্ঞ চলতে থাকলে খালেদা জিয়ার জন্য তার নেতাকর্মীরা যে খাবার নিয়ে যাবে তা কেড়ে খাবে শ্রমিকরা। প্রয়োজনে শ্রমিকরা তাকে ঘেরাও করবে, মানুষ বাঁচাতে আরও কঠোর হবে শ্রমিকরা। তিনি মানুষ হত্যার রাজনীতি করছেন অভিযোগ করে মন্ত্রী আরও বলেন শ্রমিকরা না খেয়ে থাকলে খালেদা জিয়াকেও খেতে দেবে না এদেশ খেয়ে খাওয়া শ্রমিকরা ।
শনিবার বিকেলে বাগেরহাটের ঘষিয়াখালী-মংলা চ্যানেলে চায়না হারবার ড্রেজার দ্বারা খনন কাজের উদ্ধোধন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন । তিনি আরও বলেন ২০১৩ সালে আমাদের ৫৮ জন শ্রমিক ড্রাইভার ও হেলপারকে পুড়িয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করেছে। এরমধ্যে ১৭ জন পুলিশ ও ৩ জন বিজিপি রয়েছে। আবার দেড় বছর যেতে না যেতেই মানুষ হত্যার রাজনীতিতে তিনি মেতে উঠছেন। এ পর্যন্ত ১৬ জন শ্রমিকসহ ৪২ জন সাধারন মানুষ ও ২জন এসএসসি পরিক্ষার্থীকে পেট্রোলবোমা মেরে হত্যা করেছে। এ কর্মকান্ড থেকে জনগন পরিত্রাণ চায়। আমারা খালেদা জিয়াকে বলেছিলাম আপনি অবরোধ হরতাল প্রত্যাহার করে নিন মানুষকে বাচতে দিন। তিনি তা করেননি। অবিলম্বে শ্রমিকরা আরো কঠোর হবেন উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন শ্রমিকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠলে ভয়াবহ পরিস্থিতিরমুখে পড়তে হবে খালেদা জিয়ার। তার সন্ত্রাসীদের দারা ক্ষতিগ্রস্ত আগুনে পোড়ানো গাড়ী নিয়ে তার অফিস ঘেরাও করবে।
মন্ত্রী বলেন সরকার বিদ্যুৎ বন্ধ করেনি, শ্রমিকরাই বিদ্যুৎ সংযোগ বিছিন্ন করতে বাধ্য হয়েছে। পেটে ভাত না যাওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে শ্রমিকরা বিদ্যুৎ টেলিফোন ও পানির লাইন বিছিন্ন করতে বাধ্য হয়েছে। মন্ত্রী বলেন আগামী জুন মাসের মধ্যে এই নৌরুটটিকে নৌযান চলাচলের যোগ্য করে তোলা হবে। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তালুকদার আব্দুল খালেক এমপি, বিআই ড্রাব্লিউ টিএর চেয়ারম্যান সামসুজ্জোহা খোন্দকার,স্বরাষ্ট সচিব ড:মোজ্জাম্মেল হক খান, বাগেরহাট জেলা প্রসাশক জাহাংগীর আলম প্রমুখ। এদিকে মন্ত্রীর জ্বালাময়ী এই বক্তব্যকে করতালীর মাধ্যমে সমর্থন করেন উদ্বোধনী আসা শত-সহস্র মানুষ।

শেয়ার