আইএস জিহাদিরা ‘স্বমেহনকারী’

Boris
সমাজের কথা ডেস্ক॥ ইসলামিক স্টেটের (আইএস) হয়ে যুদ্ধ করতে যাওয়া ব্যক্তিরা আসলে ‘স্বমেহনকারী’। তারা নারী সঙ্গ পায় না বলে অশ্লীল ছবি দেখে। লন্ডনের মেয়র বরিস জনসন এ মন্তব্য করেছেন।
ইরাকের কুর্দি অঞ্চলের রাজধানী ইরবিল সফরের এক সপ্তাহ পর ‘দ্য সান’ পত্রিকাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন। সেখানে পেশমের্গা বাহিনীর অনুশীলন দেখেন জনসন।

নিজের মন্তব্যের পক্ষে জঙ্গিদের প্রফাইল নিয়ে গোয়েন্দা সংস্থা ‘এমআইফাইভ’ এর প্রতিবেদনের প্রসঙ্গ টেনে জনসন বলেন, “যদি আপনি এই বোমাবাজদের মনস্তাত্ত্বিক গতিপ্রকৃতি লক্ষ্য করেন তবে দেখতে পাবেন এরা নিয়মিত অশ্লীল ছবি দেখে। তারা বস্তুত স্বমেহন করে।”

“তারা যন্ত্রণার মধ্যে থাকে। ফলে নারীদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ার ক্ষেত্রে তাদের খুব অসুবিধায় পড়তে হয়। তারা সব সময়ই মনে করে তারা জীবনে ব্যর্থ এবং বিশ্ব তাদের বিপক্ষে। আর এই হতাশা থেকেই তাদের মধ্যে এ ধরনের লক্ষণ দেখা যায়। যেহেতু তারা নারীদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে পারে না তাই তারা যৌন চাহিদা মেটাতে অন্য পন্থা অবলম্বন করেৃ.. যেটাতে আসলে তাদের চাহিদা মেটে না।”

আইএস’র যোদ্ধাদের সম্পর্কে জনসন বলেন, “তারা একদমই তরুণ যাদের আত্মসম্মান বোধ থাকাটা খুব জরুরি। অথচ তাদের জীবনের নির্দিষ্ট কোন লক্ষ্য নেই। তারা মনে করে তারা হেরে গেছে এবং এ কারণে তারা সব কিছু ধ্বংস করে দিতে চায় যাতে তারা নিজেদের জয়ী মনে করতে পারে।”

শুক্রবার ‘স্কাই নিউজ’কে দেয়া সাক্ষাৎকারে নিজের আগের মন্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে জনসন বলেন, “ভয়াবহ ব্যাপার হচ্ছে এরা সবাই তরুণ। মূলত এসব তরুণ জীবনে কিভাবে সফল হওয়া যায় সে ব্যাপারে পর্যাপ্ত ধারণা ছাড়াই ছোট থেকে বড় হয়েছে। পৃথিবীতে তাদের জন্য কত যে সম্ভাবনা রয়েছে সে সম্পর্কে তাদের কোন জ্ঞান নেইৃ.তাদের সমস্যাগুলোকে চিহ্নিত করে সেগুলো সমাধান করা প্রয়োজন।”

শেয়ার