এবার ১৫ লাখ এসএসসি পরীক্ষার্থীকে জিম্মি করলো বিএনপি ॥ এসএসসি পরীক্ষার একদিন আগে থেকেই ৭২ ঘণ্টার হরতাল

filWMe
নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ হরতালের নামে এবার ১৫ লাখ এসএসসি পরীক্ষার্থীকে জিম্মি করলো বিএনপি। এসএসসি পরীক্ষার মধ্যে অবরোধ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর এবার ৭২ ঘণ্টা হরতাল ডাকলো বিএনপি। সোমবার থেকে শুরু হওয়া এসএসসি পরীক্ষার একদিন আগে রোববার সকাল থেকে ৭২ ঘণ্টার এই হরতাল ডেকেছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট।
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী শুক্রবার এক বিবৃতিতে এই কর্মসূচি ঘোষণা করে বলেন, রবিবার (১ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৬টা থেকে বুধবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ৭২ ঘণ্টা ঢাকাসহ সারা দেশে এই কর্মসূচি চলবে।
এদিকে ২ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে একযোগে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর সূচি রয়েছে, যাতে অংশ নেবে প্রায় ১৫ লাখ শিক্ষার্থী। পরীক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে অবরোধ প্রত্যাহারে শিক্ষামন্ত্রীর আহবান নাকচ করে দুপুরে এক বিবৃতিতে রিজভী জানান, তাদের ‘শান্তিপূর্ণ’ অবরোধ অব্যাহত থাকবে। এর ঘণ্টখানেক পর তার আরেক বিবৃতিতে সারা দেশে হরতালের ঘোষণা আসে।
তিনি বলেন, “গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য চলমান আন্দোলনের অংশ হিসেবে আগামী রবি, সোম ও মঙ্গলবার ৭২ ঘণ্টার হরতাল পালিত হবে।” অবরোধের শুরু থেকেই ‘অজ্ঞাত স্থান থেকে’ নিয়মিত বিবৃতি দিয়ে দলের অবস্থান জানিয়ে আসা রিজভী অজ্ঞাতবাস থেকেই বিবৃতিতে এ হরতাল ডেকেছেন।
গত ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের বর্ষপূর্তির দিনে লাগাতার অবরোধের ঘোষণা দেন বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া। এই কর্মসূচির মধ্যে প্রতি সপ্তাহেই দেশের বিভিন্ন স্থানে হরতাল চলছে। আর হরতাল অবরোধের সাথে পাল্লা দিয়ে চলছে নাশকতাও।
এই অবরোধ-হরতালে প্রতিদিনই বাসে আগুন দেওয়া ও পেট্রোল বোমা ছোড়ার মতো ঘটনা ঘটছে, সহিংসতা ও নাশকতায় মৃত্যু হয়েছে অন্তত ৩৯ জনের। দুটি ঘটনায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে আসামি করে মামলাও হয়েছে।
আর টানা অবরোধের মধ্যেই হরতালে উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় রয়েছে এসএসসি ও সমমানের প্রায় ১৫ লাখ পরীক্ষার্থী। অবরোধের সাথে হরতালে পরীক্ষা পেছানোর দুর্ভাবনা আর রাজপথে সহিসংতার আতঙ্কে শিক্ষার্থীদের পড়ার টেবিলের একাগ্রতা উবে যাচ্ছে। অব্যাহত অবরোধ আর হরতালের মধ্যে পরীক্ষা হলে শহরের শিক্ষার্থীদের থাকতে হবে নাশকতার আতঙ্কে আর গ্রামের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্রে যাতায়াতের ক্ষেত্রে পড়তে হবে চরম বিপাকে।
রাজনৈতিক এই অস্থিরতা আর সহিংসতাকে মাথায় নিয়ে আগামী সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে এই মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষা। শিক্ষাজীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে পরীক্ষা নিয়ে সন্তানদের এই উৎকণ্ঠায় আতঙ্কিত অভিভাবকরাও।
শহরের বেজপাড়া এলাকার অভিভাবক মহিদুল ইসলাম বলেন, হরতাল অবরোধের মধ্যে সন্তানের পরীক্ষা নিয়ে তারা চরম দুশ্চিন্তায় রয়েছেন। পরীক্ষা হবে কী হবে না, এ নিয়ে ছেলে মেয়েদের প্রস্তুতি ভালো হচ্ছে না। অনেকে পড়াশুনায় অমনযোগী হয়ে পড়েছে। এতে ফলাফল খারাপ হওয়ার আশংকা থেকে যাচ্ছে। পরীক্ষা পেছানোর দুর্ভাবনা আর রাস্তায় সহিংসতার আতঙ্ক নিয়ে তাদের দিন কাটছে। তাই কোন দলেরই পরীক্ষার সময় অবরোধ কিংবা হরতাল দেয়া উচিত নয় বলে তার মন্তব্য।
চৌগাছার মাকাপুর বল্লভপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শংকর কুমার ব্যানার্জি বলেন, গ্রামের শিক্ষার্থীদের অনেককে ১২/১৪ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে উপজেলা সদরে গিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হয়। তাই হরতাল অবরোধ থাকলে তাদের সমস্যায় পড়তে হয়। এতে শিক্ষার্থীরা মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাই পরীক্ষার সময় হরতাল কিংবা অবরোধ কাম্য নয়।

শেয়ার