যশোরে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৮ সদস্য আটক

atda
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের আট সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি ট্রাক, ৫টি বোমা, ৩টি হাসুয়া, দড়িসহ বিস্ফোরিত বোমার আলামত উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার ভোর রাতে শহরের মণিহার এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।
আটককৃতরা হলেন, ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা উপজেলার শহিদনগর কুচলিয়া গ্রামের নান্নু মিয়ার ছেলে হাফিজ মিয়া, ফরিদপুর সদর উপজেলার সাদিপুর গ্রামের আব্দুস সামাদ সরদারের ছেলে ফজল সরদার, ইউনুচ শেখের ছেলে মতিউর রহমান, সিতারামপুর গ্রামের সামু শেখের ছেলে ফুয়াদ শেখ, রইছ খোলা গ্রামের নইমুদ্দিনের ছেলে রইচ উদ্দিন, গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানি উপজেলার শিবগাতী গ্রামের বালা কাজীর ছেলে মিরাজ কাজী, কুটি মিয়া খানের ছেলে বিলায়েত হোসেন খান এবং কুষ্টিয়া জেলার খোকশা উপজেলার দেবীনগর গ্রামের কিয়াম উদ্দিন শেখের ছেলে রবিউল ইসলাম।
চাঁচড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জামাল উদ্দিন জানান, আটককৃতরা আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। তারা কখনো যাত্রী, কখনো ব্যবসায়ী সেজে বাস, ট্রাক, মাইক্রোবাস এবং প্রাইভেটকার ভাড়া করে বিভিন্নস্থানে যাতায়াত করে। আর সুযোগ বুঝে ডাকাতি ও ছিনতাই করে বেড়ায়। এরা বেশ কিছু দিন ধরে যশোর এলাকার মাগুরা, নড়াইল, ঝিনাইদহ এবং বেনাপোল মহাসড়কে ডাকাতি করে বেড়ায়।
মঙ্গলবার তারা জব্দকৃত ওই ট্রাকে আটক ৮জনসহ আরো ৫/৬ জন রাত সাড়ে ১১টার দিকে মাগুরা মহাসড়কে ডাকাতির প্রস্তুতি নেয়। এমন খবর পেয়ে চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। কিন্তু পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে স্থান পরিবর্তন করে যশোর-নড়াইল মহাসড়কে ডাকাতির উদ্দেশ্যে গিয়ে শহরের সিটি কলেজ গেটের সামনে অবস্থান নেয়। পুলিশ তাদের পিছু নিয়ে সিটি কলেজ গেটের সামনে পৌঁছালে তারা ট্রাকটি দ্রুত চালিয়ে নড়াইল সড়কের দিকে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে এবং পুলিশকে লক্ষ্য করে একটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এসময় পুলিশ তাদের আটক করে এবং ট্রাকটিসহ বোমা জব্দ করে। এঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে আটক ৮ জনসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন। পলাতক আসামি হলেন, যশোর শহরের চাঁচড়া ডাল মিল এলাকার কিনু ডাকাতের ছেলে আলমগীর হোসেন।

শেয়ার