এপ্রিলে আন্তর্জাতিক আদালতে যোগ দেবে ফিলিস্তিন

ban ki moon
সমাজের কথা ডেস্ক॥

আগামী ১ এপ্রিলেই ফিলিস্তিন আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে (আইসিসি) যোগ দেবে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুন। আইসিসিতে যোগ দিলে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ করার সুযোগ থাকবে স্বাধীনতাকামী অঞ্চলটির হাতে।

মঙ্গলবার (৬ জানুয়ারি) রাতে জাতিসংঘ ট্রিটি (চুক্তি) ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বান কি-মুন বলেন, এ সংক্রান্ত বিধানটি ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের পক্ষে আগামী ১ এপ্রিল থেকে বাস্তবায়ন হবে।

জাতিসংঘ মহাসচিব জানান, এ সংক্রান্ত নথিগুলোর অনুসমর্থনে তিনি ‘আমানতদার’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

বিশে¬ষকরা মনে করছেন, ফিলিস্তিনের এ পদক্ষেপ অঞ্চলটির বিরুদ্ধে ইসরায়েলের ‘পাল্টা আঘাতের’ আশঙ্কা বাড়িয়ে দিচ্ছে। এছাড়া, ইসরায়েল-ফিলিস্তিন শান্তিচুক্তির প্রধান বাধা মনে করে এ উদ্যোগের কড়া বিরোধিতা করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র।

সম্প্রতি নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগে অবস্থিত আইসিসিতে যোগ দিতে এ সংক্রান্ত রোম বিধানে স্বাক্ষর করেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। এরপর গত শুক্রবার এ সংক্রান্ত প্রস্তাবনাটি জাতিসংঘ মহাসচিবের কাছে পাঠানো হয়। ফিলিস্তিনের পক্ষ থেকে বলা হয়, বান কি-মুন অনুমতি দিলেই প্রস্তাবনাটি আইসিসিতে পাঠানো হবে।

দ্য হেগভিত্তিক আইসিসি জাতিসংঘভুক্ত কোনো সংস্থা না হলেও বিশ্বের যুদ্ধাপরাধ ও মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার করে থাকে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় স্বীকৃত বিচারক প্রতিষ্ঠানটি।

বিশে¬ষকরা মনে করছেন, ফিলিস্তিন আইসিসির সদস্য হয়ে গেলে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের নালিশ করতে পারবে। আর সেটাকেই ‘শান্তিচুক্তি’র বড় হুমকি মানছে তেলআবিব ও ওয়াশিংটন।

শেয়ার