মদ বেচতে না চাওয়ায়…

islame mod
সমাজের কথা ডেস্ক॥ লন্ডনের বিখ্যাত সুপারশপ টেসকো। সোমবার সেখানে প্রয়োজনীয় কেনাকাটা করতে গিয়েছিলেন জুলি কটেল নামের এক নারী। কটেল দোকানের এক মুসলিম কর্মচারীর কাছে তিন বোতল ওয়াইন চাইলেন। কিন্তু কর্মচারী তার কাছে মদ বেচবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন। তিনি কটেলকে বলেন,‘আমি রোজা আছি। এ অবস্থায় আমি তোমার ঝুড়িতে মদ তুলে দিতে পারব না।’ ৪৩ বছরের কটেল এতে ক্ষেপে যান এবং চিৎকার করতে শুরু করেন। তখন দোকানের ম্যানেজারকে ডেকে দেন ওই কর্মচারী। ম্যানেজারের কাছে নালিশ করেন কটেল। কিন্তু ম্যানেজার তার কর্মচারীর পক্ষ নিয়ে বলেন,‘ও আপনাকে মদ দিতে পারবে না। সে রোজা রেখেছে। আপনি নিজ হাতে ওয়াইন তুলে নেন।’
এতে ভীষণ অপমানিত বোধ করেন মিস কটেল। তার ভাষ্য হল,‘ আমি জানি তিনি মুসলমান। কিন্তু তাই বলে তিনি দায়িত্বে অবহেলা করতে পারেন না। তার নিজের দায়িত্বটা ঠিকভাবে পালন করা উচিত। না পারলে তার চাকুরি ছেড়ে দেয়া উচিত।’
তিন সন্তানের মা কটেল দোকানের ম্যানেজারের কথায় আরো রেগে যান এবং বাড়ি ফিরে সঙ্গে সঙ্গে টেসকোর কাস্টমার কেয়ারে টেলিফোন করে অভিযোগ করেন। পরে সোমবারের ওই ঘটনার জন্য কটেলের কাছে ক্ষমা চেয়েছে টেসকো। তারা এ নিয়ে ওই মুসলিম কর্মচারীর সঙ্গেও কথা বলেছে বলে জানা গেছে।

এ সম্পর্কে টেসকোর এক মুখপাত্র ডেইলি মেইলকে জানায়,‘আমরা এখানে খদ্দেরদের সেবা করার জন্যই রয়েছি। তারা যে পণ্যটি কিনতে চান সেটাই তাদের হাতে তুলে দেই। কোনো কর্মচারীর এ নিয়ে সমস্যা হলে তার চাকুরি ছেড়ে দেয়া উচিত।’

তবে এ ঘটনায় টেসকোর ওই মুসলিম কর্মচারীকে চাকুরি থেকে বিতাড়িত করা হয়েছে কিনা তা অবশ্য জানায়নি ডেইলি মেইল।

শেয়ার