খড়কি গাজীর বাজার সড়কে বেরিকেড দিয়ে ডাকাতি॥ দু’জনকে গণধোলাই

khorki
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ শুক্রবার গভীর রাতে শহরের খড়কী গাজির বাজারে সংযোগ সড়কে দড়ি দিয়ে বেরিকেট সৃষ্টির মাধ্যমে ডাকাতি শুরু করে। এ সময় স্থানীয় জনতা জানতে পেরে তাদের ঘেরাও করে ইমন নামে এক যুবক ও তৃপ্তি নামে এক কিশোরীকে আটক করে গণধোলাই দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ইমনকে হাসপাতালে ভর্তি করে। ঘটনাস্থল থেকে দু’টি গাছি-দা, একটি খেলনা পিস্তল ও এক গাছি দড়ি উদ্ধার করা হয়েছে। এঘটনায় ১০ জনের নামসহ অজ্ঞাতনামা আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে পুলিশ মামলা করেছে। এরআগে একই এলাকায় একটি ছাত্রাবাসে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। আটক শারমিন ওরফে তৃপ্তি শহরতলীর খোলাডাঙ্গা গ্রামের মফিজপাড়ার হাতেম আলীর মেয়ে এবং ইমন একই এলাকার নূর ইসলামের ছেলে ।
চাঁচড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জামাল উদ্দিন জানান শুক্রবার রাত ৩টার দিকে মহিলাসহ ১৫/১৬ জন দুর্বৃত্ত খড়কির গাজির বাজার এলাকায় (পালবাড়ি-চাঁচড়া) বাইপাস সড়কে দড়ি টানিয়ে বেরিকেট সৃষ্টি করে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এরপর তারা বাস ট্রাক থামিয়ে ২/৩টি ট্রাক থেকে নগদ ১৭ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন সেট ছিনিয়ে নেয়। এ সময় স্থানীয়রা ছুটে এসে ইমন নামে এক যুবক ও কিশোরী তৃপ্তিকে আটক করে। খবর পেয়ে চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশ সেখান থেকে ওই দু’জনকে উদ্ধার করে ইমনকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। তৃপ্তিকে থানা হাজতে আটক রাখে। এদিকে ঘটনার সময় আটক দু’জনের কাছ থেকে দুইটি গাছি-দা, একটি খেলানা পিস্তল ও এক গাছি দড়ি উদ্ধার করে। তবে আটক ইমনের ডান পা ভেঙ্গে গেছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানাগেছে। এ ব্যাপারে কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ সহিদুল ইসলাম জানিয়েছেন, ঘটনার সময় শারমিন, ইমন ছাড়াও শারমিনের বোন আমেনাসহ যারা ছিল বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে।

শেয়ার