৪ মিনিটেরও কম সময়ে ৫০ হাজার ‘মি প্যাড’ বিক্রি!

xiaomi
সমাজের কথা ডেস্ক॥ বাজারে ছাড়ার মাত্র ৪ মিনিটেরও কম সময়ে এক্সিওমি’র ‘মি প্যাড’ বিক্রি হয়েছে ৫০ হাজার । কিন্তু এতো কম সময়ে অবিশ্বাস্য এই সফলতা প্রতিষ্ঠানটিকে খুব একটা উল্লসিত করতে পারেনি। যার মূল কারণ বিক্রির ক্ষেত্রে বিপুল সংখ্যার রেকর্ড গড়ায় এক্সিওমি অভ্যস্ত।
তথ্য মতে, আনুষ্ঠানিক প্রকাশের ঠিক ৩ মিনিট ৫৯ সেকেন্ডের মাথায় ৫০ হাজার মি প্যাড বিক্রির রেকর্ড কেবল প্রতিষ্ঠানটির নিজস্ব বাজার খেকেই এসছে।

প্রাতিষ্ঠানিক সুত্র বলছে, মে মাসে মি প্যাডের ঘোষণা আসার পরপরই পণ্যটিতে ব্যাপক আগ্রহ দেখেছে তারা। আর সেই আগ্রহ যে পুরো নিখাদ ছিল তার সত্যতা প্রমাণ হলো এখন।

বিশ্লেষকদের মতে, পণ্যের গুণগত মান যথার্থ রাখায় চীনা ইলেকট্রনিক্স নির্মাতা সবসময় প্রযুাক্তিপ্রেমীদের কাছে পছন্দের ব্র্যান্ড হয়ে উঠতে পেরেছে।

এক্সিওমি’র এ পণ্যটি অ্যাপলের আইপ্যাডের অনুরুপ এমনকি অন্য সব ক্ষেত্রেও এর যথেষ্ট মিল রয়েছে। এছাড়া নির্ধারিত দামও বাজারের অন্যসব পণ্যের সাথে টেক্কা দেওয়ার মতো। গঠন অবয়ব এবং রঙেও রয়েছে আকর্ষণীয়তা। অনেকের মতে, এটি অ্যাপলের আইপ্যাডের বিকল্প হিসেবে চালানো সম্ভব।

মি প্যাডের ডিসপ্লে ৭.৯ ইঞ্চি যাতে ২০৪৮ বাই ১৫৩৬ পিক্সেল রয়েছে শক্তিশালী ২.২ গিগাহার্জ এনভিডিয়া টেগরা কেওয়ান প্রসেসর এবং জিপিইউ ১৯২ কোর আছে।

বাজারজাতের বিষয়ে বলা হয়েছে, ভারতের বাজারে খুব শীঘ্রই দেখা যাবে মি প্যাড।

নির্মাতা সুত্রের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, শুধু মি প্যাডই নয় এরসঙ্গে একই ব্র্যান্ডের সেরা দুটি স্মার্টফোনও ভারতে উন্মুক্ত হবে। পণ্যটির বিশেষ সুবিধার মধ্যে অন্তর্ভূক্ত সেবাগুলো তাদের কাস্টোমাইজড এমআইইউআই ভি৫ ফার্মওয়্যারে স্থাপিত। যা অ্যান্ড্রয়েডের শীর্ষস্থানীয় ও্ওস জেলি বিন ৪.৩ সংস্করণে চলবে।এছাড়া গান মুভি থেকে শুরু করে উপভোগ্য সমস্ত সুবিধা চাইলেই ডাউলোড করতে পারবে ব্যবহারকারীরা।

শেয়ার