ভাসুরের ছুঁড়ে মারা ইটের আঘাতে গর্ভেই মারা গেল সন্তান

pregnent
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ দাম্পত্য জীবনে প্রথম সন্তানের মুখ দেখতে পারলেন নববধূ বিলকিস বেগম (১৮)। প্রতিবেশির ছুঁড়ে ফেলা ইট তার সব স্বপ্ন ভেঙ্গে চুরমার করে দিয়েছে। গর্ভেই মারা গেছে সন্তান। তাকে রক্তাত্ব অবস্থায় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে যশোর সদর উপজেলার চুড়ামনকাটির ঘুনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিলকিস ঐ গ্রামের হুমায়ুন আহম্মেদের স্ত্রী। ৭ মাস আগে পারিবারিকভাবে তাদের বিবাহ হয়।
বিলকিস জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বামীর বড় ভাই সলেমানের বাড়ির উপর দিয়ে যাওয়ার সময় ভাসুরের মেয়ে পপিকে মারধর করছিল শিশুটির মা সোনালী। এসময় বিলকিস বাধা দিতে গেলে ভাসুর সলেমান ও মনিরুল তাকে মারপিট করে। একপর্যায় বিলকিসের পেটে আদলা ইট ছুটে এসে লাগে। এতে বিলকিস মাটিতে লুটে পড়লে এলাকাবাসী তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। কর্তব্যরত চিকিৎসক বিলকিসের দু’মাসের মৃত সন্তান প্রসাব করান। এরমধ্য দিয়ে বিলকিসের জীবনে ঘটে গেল এক দু:স্বপ্ন।

শেয়ার