যশোরে দেবরের লাথিতে মারা গেল ভাবীর গর্ভের সন্তান

pregnent
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেবরের পায়ের লাথিতে শাহিনুর (৩০) নামে এক গৃহবধূর তিন মাসের গর্ভের সন্তান মারা গেছে। তাকে রক্তাত্ব অবস্থায় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে শহরের ধর্মতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। শাহিনুর ওই এলাকার রুহুল আমিনের স্ত্রী।
শাহিনুর জানান, বুধবার সকালে তার দেবর নূরুন নবীর ছেলে রনিকে যশোর পৌরসভা থেকে বড় মেয়ের নাগরিক সনদপত্র এনে দেয়ার জন্য বলেন কিন্তু রনি বড়মার কথা পালন না করায় দুপুরে শাহিনুর রনিকে বকাঝকা করেন। তখন রনি বিষয়টি তার বাবা নুরুন নবীকে জানায়। নুরুননবী ছেলের অভিযোগ শুনে ভাবি শাহিনুরকে গালিগালাজ করে। বিষয়টি শাহিনুর তার স্বামী রুহুল আমিনকে বিকেলে জানালে তা দেবর শুনে বড় ভাইয়ের সামনে ভাবি শাহিনুরের পেটে লাথি মারে। তখন শাহিনুরের গর্ভে তিন মাসের সন্তান নষ্ট হয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। এ সময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা শাহিনুরকে দ্রুত যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শাহিনুরের নষ্ট বাচ্চা এ্যাবারসন করে বের করেন। বর্তমানে শাহিনুর বিপদমুক্ত বলে জানিয়েছেন ডাঃ সুব্রত।

শেয়ার