জার্মানির বিপক্ষে প্রতিশোধের ফাইনালে আর্জেন্টিনা

germany
সমাজের কথা ডেস্ক॥ অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ব্রাজিল বিশ্বকাপ-২০১৪ পেলো দুই ফাইনালিস্ট দলকে।
এর মধ্যে জার্মানি ইতিহাস গড়ে স্বাগতিকদের চোখের জলে ভাসিয়ে ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেন। সেমিতে ব্রাজিলকে রেকর্ড গড়া ৭-১ গোলে হারায় জার্মানরা। অপর সেমিফাইনালে নেদারল্যান্ডকে টাইব্রেকারে ৪-২ গোলে হারিয়ে দুই যুগ পর ফাইনালের দরজায় পা রাখলো মেসির আর্জেন্টিনা।

অবাক করা বিষয় হলো আর্জেন্টিনা শেষবার ফাইনালে খেলেছে ১৯৯০ সালে। সেবার তাদের প্রতিপক্ষ ছিলো এই জার্মাননা (ওই সময়কার পশ্চিম জার্মান)। ঠিক ২৪ বছর পরে আবারো ফাইনালে গেল আর্জেন্টিনা, খেলবে সেই জার্মানদের বিপক্ষে।

যদিও সেবার জার্মানদের কাছে ১-০ গোলে হেরেছিলো ম্যারাডোনার আর্জেন্টিনা। তবে এর আগের (১৯৮৬) বিশ্বকাপে জার্মানদের ৩-২ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপের শিরোপার স্বাদ পেয়েছিলো ম্যারাডোনার আর্জেন্টিনা।

এবার ২০১৪ বিশ্বকাপে তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে আবারো মুখোমুখি হচ্ছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী এ দু’দল। ১৯৮৬ ও ৯০ সালের বিশ্বকাপে আর্জেন্টাইন দলে ছিলো ম্যারাডোনা, আর ২০১৪ এর ফাইনালে মেসি তাদের মূল ভরসা।

অন্যদিকে সেমিতে স্বাগতিকদের লজ্জায় ডুবিয়ে ৭-১ গোলে জয় নিয়ে দারুন উজ্জিবীত জার্মানরা। ১৯৯০ সালের পর ২০০২ এ ব্রাজিলের বিপক্ষে ফাইনাল খেললেও শিরোপার স্বাদ পায়নি তারা। ওই ম্যাচে জার্মানরা ০-২ গোলে হেরেছিলো ব্রাজিলের কাছে।

১৯৯০ সালের পরে আর্জেন্টিনা কোয়ার্টার ফাইনালের বাধা পেরিয়ে সামনে এগুতে পারে নি। ১৯৯০ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালে পরাজিত হওয়া ছাড়াও ২০০৬ ও ২০১০ সালে জার্মানির কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হয়ে। এজন্য আর্জেন্টাইনদের কাছে ১৩ জুলাইয়ের মারাকানার ফাইনাল হবে প্রতিশোধের ম্যাচ।

ইতিহাস বলে জার্মানরাও ছেড়ে দেওয়ার দল নয়। তারাও ১৯৮৬ বিশ্বকাপে হারের প্রতিশোধ নিতে মরিয়া। জার্মানি এ পর্যন্ত ফইনাল খেলেছে সাতবার। এরমধ্যে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ৩টিতে এবং রানারসআপ হয়েছে ৪টিতে।

১৩ জুলাই ব্রাজিলের রিও ডি জেনেরিওর মারাকানা স্টেডিয়ামে ফাইনালে জার্মানদের মুখোমুখি আর্জেন্টিনা।

শেয়ার