ব্রাজিলের সরকার পতন হতে পারে!

shor
সমাজের কথা ডেস্ক॥সেমিফাইনালে ৭-১ গোলের ব্যবধানে ব্রাজিলের পরাজয় ক্ষমতাসীন সরকারের জন্য ভয়াবহ সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। ফুটবলের জন্য এসব দেশে রাজনৈতিক উত্তেজনা নিয়মিত ঘটনা। রাজনৈতিক দলগুলো তাই ফুটবলকে দক্ষিণ আমেরিকার ধর্মজ্ঞান করে সবকিছু করে। মিশেলকপেদী নামের আমার এক ব্রাজিলিয়ান সহপাঠী বান্ধবী আছে। ব্রাজিলের তারকা ফুটবলার নেইমারের বাড়ির কাছে তার বাড়ি। কথা প্রসঙ্গে সে বললো, বিশ্বকাপ থেকে বিদায়ের কারণে ব্রাজিলের সরকার পতন হতে পারে। অথবা আগামী অক্টোবরের নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের ভূমিধস পরাজয় হবে।
কয়েক দিন আগে অস্ট্রেলিয়ান টিভি চ্যানেল এসবিএস এর এক বিশ্লেষকও একই কথা বলেছিলেন,‘ব্রাজিলিয়ানরা ফুটবল ক্রেজি জাতি। তারা ভাতের কথা ভুলে গিয়ে ফুটবল করতে বেশি পছন্দ করে। শুধুমাত্র ফুটবলের জন্য তারা বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার খরচ করে। অথচ ক্ষুধা দারিদ্র দুর্নীতির মত আরো অন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা তাদের আছে। কিন্তু ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্ব ব্রাজিলিয়ানদের জাতীয় প্রত্যাশা।

এবারও তাই ব্রাজিলের সবচেয়ে সফলতম কোচ স্কলারিকেই দল নির্বাচনের সর্বময় ক্ষমতা দেয়া হয়েছিল, তিনি এই বিশ্বকাপে অপেক্ষাকৃত একটি তরুণ দল নির্বাচন করেছিলেন। সেমি ফাইনালে নজিরবিহীন এই ব্যর্থতার কারণে তিনি হয়ত তার কোচের চাকরি হারাবেন অথবা পদত্যাগ করবেন। এটা নিশ্চিত। কিন্তু সরকারের কিংবা ক্ষমতাসীন দলের শেষ রক্ষা করবে কে? জনরোষ কিংবা সাধারণ নির্বাচন আজকের বিষাদময় সেমি ফাইনালের চেয়েও নিষ্ঠুরতম।

উল্লেখ্য, একই কারণে ১৯৭৮ সালে আর্জেন্টিনার সরকার ম্যাচ ফিক্সিং করে নিজেদের দলকে বিশ্বকাপ জিতিয়েছিল। নিজ দেশে বিশ্বকাপ এসব দেশের সরকারের জন্য খুবই ঝূঁকিপূর্ণ।

শেয়ার