খবর শুনে ছুটে যান আ.লীগ নেতৃবৃন্দ ॥ নিহত আলমগীরের বাড়িতে বোমা হামলার ঘটনায় শাহীন চাকলাদারের উদ্বেগ

alomgir
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সদ্য প্রয়াত আলমগীর হোসেনের বাড়িতে শনিবার ভোর রাতে বোমা হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার। এক বিবৃতিতে তিনি গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, দেড় মাসেও খুনিরা গ্রেফতার না হওয়ায় এ ধরনের ন্যাক্কারজনক হামলার ঘটনা ঘটেছে। তিনি প্রশাসনের উদাসীনতাকে দায়ী করে বলেন, আলমগীরের খুনিরা আটক হলে তার বাড়িতে হামলা করার সাহস পেত না সন্ত্রাসীরা। অবিলম্বে এ খুনিদের গ্রেফতারে শাহীন চাকলাদার প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।
এদিকে, হামলার ঘটনা শুনে শনিবার নিহত আলমগীর হোসেনের বাড়িতে ছুটে যান জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আফজাল হোসেনের নেতৃত্বে একটি টিম ঘটনাস্থলে যান এবং আলমগীরের পরিবারের খোঁজ খবর নেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক শাহারুল ইসলাম, রামনগর ইউনিয়ন শাখা সভাপতি মোসলেম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান হাসুসহ নেতৃবৃন্দ।
প্রসঙ্গ, গত ২৫ মে রাতে সাবেক এমপি খালেদুর রহমান টিটোর অনুসারী পাগলা শাহীন, মহব্বত, ফসিয়ার, সিদ্দিক সুজনসহ আরও অনেকে আলমগীর হোসেনকে গুলি ও বোমা মারে। এ ঘটনার ২৪ দিন পর ১৮ জুন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান যুবলীগ নেতা আলমগীর। মৃত্যুর ১৭ দিন পরে তার বাড়িতে দুর্বৃত্তরা বোমা হামলা করলো।

শেয়ার