এবার লড়াই সেমিতে ওঠার

World cup Inner
সমাজের কথা ডেস্ক॥ ‘ডু অর ডাই’ নক আউট পর্বের প্রথম ধাক্কায় বিদায় নিয়েছে ৮ দল। বাকী আট দলের মধ্যে এবার সেমিতে ওঠার লড়াই। জিতলেই সেরা ৪ এর দরজা উন্মুক্ত, আর হারলে দেশে ফেরার টিকিট। আর এই শঙ্কার মধ্যেই রয়েছে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, জার্মানি, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস, কোস্টারিকা, কলম্বিয়া ও বেলজিয়াম। ব্রাজিল বিশ্বকাপ ফুটবলে এবার শুরু হচ্ছে শেষ ৪-এ পৌঁছানোর লড়াই- কোয়ার্টার ফাইনাল। এর আগে আসরে টিকে থাকা ৮ দলে টেনশনের পারদে ঊর্ধ্বগতি। কে বাঁচবে, কে মরবে- এই আতঙ্ক বাড়িয়ে তুলছে স্নায়ুর চাপ। ফুটবলের বিশ্বযুদ্ধ জেতার জোড় প্রস্তুতি চলছে দলগুলোতে।
যুক্তরাষ্ট্রকে হারিয়ে বেলজিয়াম যখন কোয়ার্টার ফাইনালে, তখন বিশ্বকাপের ইতিহাসে জন্ম হয়েছে নতুন রেকর্ডের। এই প্রথম বিশ্বকাপ ফুটবলে গ্রুপ পর্বের শীর্ষ ৮ দলই কোয়ার্টার ফাইনালে খেলবে। অতীতের কোন আসরেই যা কখনও ঘটেনি। তবে রেকর্ড বুকে নতুন কোন রেকর্ড লেখা হচ্ছে, তাতে দলগুলোর কি আসে যায়? ব্রাজিল বিশ্বকাপের শেষ ৮ দল হিসেবে টিকে যাওয়া দেশগুলোর এখন শেষ ৪-এ পৌঁছানোর মিশন। কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছে একদিকে যেমন আনন্দ, অন্যদিকে তেমনি সেমিফাইনালের টিকেট হাতে পাওয়ার টেনশন সঙ্গী এই দলগুলোর। গ্রুপ পর্ব কিংবা দ্বিতীয় রাউন্ডে যেভাবেই হোক জয় করা গেছে, কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচগুলো যে লড়াইয়ের কঠিন মঞ্চ এ কথা কারওই অজানা নয়। ৩২ দলের সেরা ৮ দল মাঠে নামবে। শক্তি-সামর্থ্য কিংবা কৌশল কোনটাতেই ঘাটতি নেই এই ৮টি দলের। সুতরাং কোয়ার্টারের মঞ্চে একবিন্দু ভুল মানে নির্ঘাত অপমৃত্য। দ্বিতীয় রাউন্ডের ভুলগুলো শুধরাতে তাই ব্যতিব্যস্ত টিকে থাকা ৮ শিবিরে।
আজ ৪ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে এবারের বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল পর্ব। প্রথম দিন মাঠে নামবে স্বাগতিক ব্রাজিলসহ ফ্রান্স, জার্মানি ও কলম্বিয়া। প্রথম ম্যাচে (বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায়) মুখোমুখি হবে দুই সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স ও জার্মানি। অপর ম্যাচে (রাত ২টায়) ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ কলম্বিয়া। পরদিন (৫ জুলাই) মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা, বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ডস ও কোস্টারিকা। প্রথম ম্যাচে (রাত ১০টায়) বেলজিয়ামের মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। অপর ম্যাচে কোস্টারিকার বিপক্ষে মাঠে নামবে নেদারল্যান্ডস।
কোয়ার্টার ফাইনালের সূচির দিকে তাকালে এ কথা আর বলে দেওয়ার প্রয়োজন নেই যে, শেষ ৮-এর লড়াই থেকেই এবারের মতো বিশ্বকাপ শেষ হয়ে যাবে দুই সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স ও জার্মানির দুই দলের কোন একটির। নিঃসন্দেহে এবারের কোয়ার্টার ফাইনালে সবচেয়ে বড় ম্যাচ, এটি-হাইভোর্টেজ ম্যাচ। কে জিতবে এই লড়াইয়ে? এর উত্তরে পৃথিবীর বাঘা বাঘা ফুটবল বোদ্ধারাও নিশ্চুপ।
ব্রাজিলের মাটিতে গ্রুপ পর্ব থেকেই দাপট দেখিয়ে আসছে এই দুই দেশ। তবে নক আউট পর্বে অতোটা দাপট দেখা যায়নি দুই দেশের খেলায়। গ্রুপ পর্ব থেকে ৩ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট সংগ্রহ করে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে শেষ ১৬’র লড়াইয়ে নেমেছিল ফ্রান্স। তবে ‘এফ’ গ্রুপের রানার আপ নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ফ্রান্সকে যথেষ্টই ঘাম ঝরাতে হয়েছে। এমনকি ম্যাচ হেরে আসর থেকে বিদায় নেওয়ার আশঙ্কাতেও ছিল ১৯৯৮ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। তবে ধৈর্য আর ফায়ারপাওয়ার ফ্রান্সের যে মূল শক্তি তা আরেকবার প্রমাণিত হয়েছে। এই দুই গুণের ওপর ভর করেই শেষ অবধি ২-০ গোলে ম্যাচ জিতে কোয়ার্টার নিশ্চিত করেছিল ফরাসিরা। জার্মানির বিপক্ষেও যে একই ঘটনা ঘটবে না এমন কথা নিশ্চিত করে বলা যায় না। করিম বেনজামা জ্বলে ওঠলে জার্মানদের পক্ষে ফ্রান্সকে আটাকানো কঠিনই হবে।

শেয়ার