সদাচারণে সহায়ক সহিংস ভিডিও গেম!

mrqegnm1
সমাজের কথা ডেস্ক॥ দাঙ্গা-হাঙ্গামার বিষয়বস্তু নিয়ে তৈরি করা ভিডিও গেম খেলোয়াড়দেরকে আরো আগ্রাসী করে তোলে বলেই আমরা জানি। কিন্তু নতুন একটি গবেষণা বলছে সম্পূর্ণ বিপরীত কথা।
বলা হচ্ছে, সহিংস ভিডিও গেম বাস্তব জীবনে মানুষকে সদাচারী করে তোলা এমনকি নৈতিকতাবোধও জাগিয়ে তুলতে সহায়ক হতে পারে।
গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, গেম খেলার সময় অবিরাম সহিংস কাজ করার কারণে খেলোয়াড়ের মধ্যে এক ধরনের অপরাধবোধ জেগে উঠে। এতে করে খেলোয়াড়রা বাস্তব জীবনে স্পর্শকাতর বিষয়গুলোতে আরো সতর্ক আচরণ করে।
খেলার সময় যে নৈতিকতা তারা লঙ্ঘন করে বাস্তব জীবনে সেই নৈতিক দিকগুলোই রক্ষা করে চলার ব্যাপারে খেলোয়াড়রা আরো সজাগ হয়।
যুক্তরাষ্ট্রের ‘ইউনিভার্সিটি অব বাফেলো’র অধ্যাপক ম্যাথিউ গ্রিজার্ট গবেষণা কাজের নেতৃত্ব দেন। তিনি বলেন, “ওই ধরনের গেম এ খেলোয়াড়রা উগ্র হওয়ার পরিবর্তে বরং সভ্য ও শান্ত হয়”।
এ ধরনের খেলা খেলোয়াড়দের নৈতিকতাবোধ জাগ্রত করে এবং তাদেরকে স্বেচ্ছাসেবীও করে তুলতে পারে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
গবেষকরা গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদেরকে কয়েকটি অপরাধমূলক ভিডিও গেম খেলতে দেন যেগুলোতে নৈতিক ৫ টি দিকের দুটো লঙ্ঘন করে খেলতে হয় তাদেরকে।
এতে দেখা যায়, সহিংস একটি ভিডিও গেম খেলার পর খেলোয়াড় অপরাধবোধে ভুগেছে এবং সেই অপরাধবোধের কারণে সে অনেক বেশি বিবেকবোধসম্পন্ন আচরণ করেছে।
‘সাইবারসাইকোলেজি, বিহেভিয়ার এন্ড সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং জার্নাল’ অনলাইনে প্রকাশ করা হয় গবেষণার এ ফল।

শেয়ার