যৌতুক লোভী স্বামীর জেল জরিমানা

karagar
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে যৌতুক মামলায় শাহাবুদ্দিন আহম্মেদ নামে এক আসামিকে জেল জরিমানা দেয়া হয়েছে। শাহাবুদ্দিন খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার শুভনা গ্রামের কেরামত আলীর ছেলে। মঙ্গলবার যশোর চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক শেখ মফিজুর রহমান এ রায় দেন।
সূত্র জানায়, ২০০৭ সালের ৭ জুলাই যশোরের মনিরামপুর উপজেলার গোপিকান্তপুর গ্রামের আলমের মেয়ে মনোয়ারা খাতুনকে বিয়ে করেন শাহাবুদ্দিন। বিয়ের সময় যৌতুক বাবদ নগদ ৫০ হাজার টাকা, সোনার আংটি ও বাইসাইকেলসহ ৭০ হাজার টাকার মালামাল দেয়া হয়। কিছু দিন যেতে না যেতেই আরো এক লাখ টাকা যৌতুকের জন্য মনোয়ারাকে মারপিটসহ শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন শুরু করে তার স্বামী। এক পর্যায়ে ২০১১ সালের ২৬ ডিসেম্বর মনোয়ারাকে মারপিট করে পিতার বাড়িতে তাড়িয়ে দেয়। এ ব্যাপারে ৩১ ডিসেম্বর স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে মিমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। পরে ২০১২ সালের ৮ জানুয়ারি আদালতে মামলা করেন মনোয়ারা খাতুন।
এ মামলায় আসামি শাহাবুদ্দিনকে এক বছরের কারাদণ্ড ও দুই হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে তাকে আরো এক মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়।

শেয়ার