তালাক যেখানে আনন্দের বিষয়!

talk
সমাজের কথা ডেস্ক॥ মানুষ বিয়ে বার্ষিকী, জন্মদিন বা এ জাতীয় কোনো আনন্দের ঘটনা সাধারণতঃ উদযাপন করে থাকে। তাই বলে তালাক বা বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা উদযাপন-তাও আবার ফুল দিয়ে কেকে কেটে? শুনে অবাক হচ্ছেন নিশ্চয়! অবাক হওয়ার কিছু নেই। ইরানের লোকজন তাদের বিবাহ বিচ্ছেদকে একটি স্মরণীয় ঘটনা হিসেবে মনে করে। এ কারণে তারা এ দিনটিকে বিশেষভাবে উদযাপন করে থাকেন।এ উপলক্ষে বড় বড় শহরগুলোতে পার্টির আয়োজন করে থাকেন তালাকপ্রাপ্ত নারী ও পুরুষেরা। স্থানীয় ‘জোমহুরি ইয়ে ইসলামি’ পক্রিবার বরাত দিয়ে বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

বিয়ে ভেঙ্গে যাওয়ার দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে অনেকে ফুলের দোকান থেকে কালো গোলাপের তোড়া কিনে আনেন। বিশাল কেক অর্ডার করেন। অনেকে তো অতিথিদের নেমতন্ন করার জন্য কার্ডও ছাপান। এসব কার্ডে আবার লেখা থাকে অদ্ভূত সব বাণী। যেমন একজন লিখেছিলেন ‘আমি তোমাকে একটুও মনে করিনা।’ একজন আবার জনপ্রিয় ফরাসি পপ গানের আস্ত কলিটিই তুলে দিয়ে বলেন,‘শপথ করে বলছি, যতদিন বেঁচে আছি আর প্রেমে পড়বো না। ভুল করে যদি প্রেম করিও তোমার সঙ্গে তো কখনোই করবো না।’

গত দু বছর ধরে নাকি কার্ডের চাহিদা অনেক বেড়ে গেছে। কার্ড প্রস্তুতকারী কোম্পানিগুলোর বরাত দিয়ে ইরানী সংবাদ মাধ্যম এ খবর জানিয়েছে। তালাক উদযাপনের ঘটনায় সম্প্রতি উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তেহরানের সরকারি কর্মকর্তারা। দেশের উচ্চ পদস্থ আলেম আয়াতুল্লাহ মাকারেম শিরাজি এই প্রবণতার বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন।
সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ইরানে বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা বেড়ে গেছে। এক পরিসংখ্যানে দেখা যায়, গত বছর সেখানে তালাকের ঘটনা ৪ দশমিক ৬ ভাগ বেড়ে গেছে এবং বিয়ের পরিমাণ কমেছে শতকরা ৪ দশমিক ৪ ভাগ। ইরানে এখন শতকরা ২০ ভাগ বিয়েই ভেঙ্গে যায়।

শেয়ার