মন্ত্রিত্বের জন্য ধর্ণা নয়!

Modi
সমাজের কথা ডেস্ক॥ ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হওয়ার পর ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) নেতা নরেন্দ্র মোদী হতে যাচ্ছেন ভারতের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী।

এ জন্য বিজেপির সিনিয়র নেতা এল কে আদভানি দলীয় ফোরামে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার জন্য নরেন্দ্র মোদীর নাম প্রস্তাব করেছেন।

মঙ্গলবার বিকেলে বিজেপিসহ ন্যাশনাল ডেমেক্র্যাটিক অ্যালায়েন্স (এনডিএ)-এর একটি প্রতিনিধি দল রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির সঙ্গে দেখা করবেন। এ সময় তারা পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদীর নাম আনুষ্ঠানিকভাবে প্রস্তাব করবেন।

এদিকে, নরেন্দ্র মোদীই যে ভারতের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন জেনে মন্ত্রিত্বের জন্য ধর্ণা দিতে তার বাসভবনে অনেকেই জড়ো হয়েছেন। ইতোমধ্যে, দেনদরবারও শুরু করেছেন।

অপরদিকে, নরেন্দ্র মোদী তার দলের সংসদ সদস্যদের স্রেফ জানিয়ে দিয়েছেন, তার সরকারে মন্ত্রিত্বের জন্য কোনো ধরনের ধর্ণা দেওয়া যাবে না।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম খবর দিয়েছে, রোববার কর্ণাটকের বিজয়ী সংসদ সদস্যরা মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। এ সময় মোদী তাদের বলেন, মন্ত্রিত্বের জন্য না দৌড়ে রাজ্যে দলকে শক্তিশালী করার জন্য নিজেদের নিয়োজিত করুন।

এদিকে, সংসদ সদস্য হিসেবে চারবার বিজয়ী গোয়ার বিজেপি নেতা শ্রীপদ নায়েক মঙ্গলবার প্রকাশ্যেই বলেন, তিনি মন্ত্রিত্বের আশা করছেন।

তিনি বলেন, গোয়ার দুটি আসনই আমরা পেয়েছি। শুধু তাই-ই নয়, বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছি আমরা। গোয়া একটি ছোট রাজ্য। এর জন্য মন্ত্রিত্বের পাওনা তো রয়েছেই।

মহারাষ্ট্র থেকে বিজয়ী সারদ বানসুল বলেন, আমাকে নিশ্চয়ই পুরস্কৃত করা উচিত। কারণ, আমি সোলাপুরে সুশীল কুমার সিন্ধেকে পরাজিত করেছি। আমি যদি মন্ত্রী হই, তবে আমার আসনে আরো ভালো কিছু করতে পারবো। আমি একজন শিল্পী। আমি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেছি।

অপরদিকে, শিবসেনা ও তেলেগু দেশম পার্টি নেতৃত্ব মোদীর সঙ্গে দেখা করবেন বলে জানিয়েছেন। তাদের রাজ্যে এনডিএ ভালো ফলাফল করেছে। সে কারণে, তারা মন্ত্রিত্বের দাবিদার।

কিন্তু মোদীর এক কথা, মন্ত্রিত্বের জন্য কোনো সংসদ সদস্য ধর্ণা দেবেন না। দেখা যাক, মোদী কীভাবে সামলান এই দেনদরবার!

আশা করা হচ্ছে, এই সপ্তাহে ৬৩ বছর বয়স্ক গুজরাটের মুখমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভারতের ১৫তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেবেন।

শেয়ার