স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে যশোর আ.লীগের আলোচনা সভা ॥ শিক্ষিত জনগণ মুর্খ খালেদাকে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় চায় না–শাহীন চাকলাদার

sahin
নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার বলেছেন, বিএনপির আমলে খুন গুমের ঘটনায় বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে প্রধান আসামি করতে হবে। খালেদা যদি নারায়নগঞ্জের ঘটনায় দোষীদের বিচার না চেয়ে র‌্যাবের বিলুপ্ত করার কথা বলতে পারেন তাহলে সেসময়ের ঘটনার জন্য তার বিচার করা যেতে পারে। গতকাল রাতে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার ৩৩তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্যদান কালে তিনি এসব কথা বলেন। জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সাবেক সাংসদ অ্যাড. পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে শাহীন চাকলাদার বলেন, খালেদা জিয়া এসি ঘরে সুপায় বসে এক; একদিন একেক ফরর্মুলা বের করছে। কোন দিন র‌্যাবের বিলুপ্তি, কোন দিন সংলাপ, কোনদিন সরকার পতন করবে বলছে। তার এসব কথা জনগণ গ্রহণ করছে না। কারণ বাংলাদেশের মানুষ এখন সুশিক্ষিত ও উন্নত জীবনযাপন করছে। তারা মুর্খ অশিক্ষিত খালেদা জিয়াকে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় দেখতে চায় না। এছাড়া বিগত সময়ে বিএনপি জামায়াত জোট ক্ষমতায় থাকাকালে তারপুত্রদ্বয় দেশের সম্পদ লুটপাট করে বিদেশের মাটিতে পাচার করেছে। আর দেশকে জঙ্গিবাদের রাষ্ট্রে পরিণত করে। এর বিপরীতে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসীন হওয়ার পর দেশে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, কৃষি প্রভৃতি খাতে ব্যাপক উন্নতি করেছে। দেশ আজ অথনৈতিক মন্দা কাটিয়ে উঠেছে। খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কার্যক্রম চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে। মানুষ ঘরে বসেই প্রযুক্তি সেবা পাচ্ছেন। শেখ হাসিনার সরকার ৫ হাজার মেগাওয়াড বিদ্যুৎ উৎপাদন করে রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। দেশের এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। শাহীন চাকলাদার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসনিার সফল নেতৃত্বে ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত করার জন্য বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিককে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহবান জানান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আলী রায়হান, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আফজাল হোসেন, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল খালেক, দপ্তর সম্পাদক মীর জহুরুল ইসলাম, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক খয়রাত হোসেন, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মোস্তাফজুর রহমান মুকুল, শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদক আসিফ-উদ-দ্দৌলা সরদার অলোক, সদস্য রেজাউল ইসলাম রেজা, সদ্য আওয়ামী লীগে যোগদানকারী নেতা জাহিদুল ইসলাম স্বপন, শহর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইমাম হাসান লাল, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহারুল ইসলাম, উপদপ্তর সম্পাদক পারভেজ আহম্মেদ, জেলা যুবমহিলা লীগের সভাপতি মঞ্জুন্নাহার নাজনীন সোনালী, সাধারণ সম্পাদক ও মহিলা কাউন্সিলর শেখ রোকেয়া পারভীন ডলি, জেলা যুবলীগ নেতা ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এসএম মাহমুদ হাসান বিপু, ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জুয়েল, বর্তমান সভাপতি আরিফুল ইসলাম রিয়াদ প্রমুখ।
উপস্থিত ছিলেন জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী নুর জাহান ইসলাম নীরা, শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা জাকির হোসেন, যুবলীগ নেতা আনিছুর রহমান, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি ফয়সাল খান, আলমগীর হোসেনসহ বিভিন্ন ওয়ার্ড শাখা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ।

শেয়ার