কালীগঞ্জে খুনি কামাল হত্যা মামলার আসামি অলোকসহ দু’জন গ্রেফতার

atok
নয়ন খন্দকার, কালীগঞ্জ॥ ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের বরাট গ্রামের খুনি কামাল হত্যা মামলার অন্যতম আসামি অলোক কুমার বিশ্বাসসহ (৪০) ২ ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আটক অপর আসামি হচ্ছে উপজেলার কাশিপুর গ্রামের মতিয়ার রহমানের ছেলে মগরব আলী (৩৫)। শনিবার সকালে কাশিপুর থেকে মগরব আলীকে এবং মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলা টিকার বাজার থেকে আলোককে পৃথক অভিযান চালিয়ে পুলিশ আটক করে। কামাল হত্যাকান্ডের প্রায় সাড়ে ৪ মাস পর অলোক গ্রেফতার হলো।
জানাগেছে, চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের মতিয়ার মোল্ল্যার পুত্র কামাল হোসেনকে কুপিয়ে হত্যা ও তার প্রেমিকা পরস্ত্রী রেবা বিশ্বাস (৩৫) ও তার ছেলে অরুপ বিশ্বাসকে কুপিয়ে জখম করে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা। তাদের আশংকাজনক অবস্থায় কালীগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা। এ ঘটনায় নিহত কামালের পিতা মতিয়ার মোল্ল্যা বাদি হয়ে কালীগঞ্জ থানায় ৭ জনকে আসামিক করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ওই সময় মাজেদা বেগম নামের এক আসামিকে আটক করে। এনিয়ে পুলিশ কামাল হত্যা মামলার ২ আসামিকে আটক করলো। উল্লেখ্য নিহত কামাল বরাট গ্রামের শহিদুল হত্যা মামলার প্রধান আসামি। কামাল হত্যাকান্ডের দুই বছর আগে বরাট গ্রামের কর্ণ বিশ্বাসের স্ত্রী রেবার সাথে নিহত কামালের অবৈধ সম্পর্ক ছিল। ঘটনাটি জেনে ফেলায় কামাল ও রেবা মিলে শহিদুলকে হত্যা করে সেফটিক ট্যাংকের মধ্যে ফেলে দেয়। এ ঘটনায় কামালকে প্রধান আসামি করে মামলা করা হয়। গত ১০ জানুয়ারি দুপুরে আসামি কামাল হোসেন পাশ্ববর্তী কৃষ্ণপুর গ্রামের কর্ণ বিশ্বাসের বাড়িতে আসে। এ সময় নিহত শহিদুলের পরিবারের সদস্যরা কামাল, রেবা বিশ্বাস ও তার ছেলে অরুপ বিশ্বাসকে কুপিয়ে মারাতœক ভাবে আহত করে। এ সময় ঘটনাস্থলেই কামাল নিহত হয়। কালীগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসার এএসআই সাহিদুর রহমান জানান, গোপন সংবাদ পেয়ে কালীগঞ্জ থানার সেকেন্ড অফিসার মনিরুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলার টিকার বাজার থেকে কামাল হত্যা মামলার অন্যতম আসামি অলোককে এবং মাদক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি মগরবকে কাশিপুর থেকে এএসআই নাসির উদ্দীন আটক করেছেন। আটককৃতদের মধ্যে মগরককে জেল হাজতে প্রেরণ ও অলোক কে থানা হাজতে আটক রাখা হয়েছে।

শেয়ার